Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ১০:১৮ অনলাইন ভার্সন
কম্বল দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ
পাবনা প্রতিনিধি

কম্বল দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ

পাবনার বেড়ায় এক কিশোরীকে কম্বল দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আব্দুর রাজ্জাক নামে এক পৌরসভার কাউন্সিলরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকেলে তাকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতার আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে বেড়া থানায় ইতিপূর্বেও আরেকটি ধর্ষণ মামলা ও দুটি মাদক আইনে মামলা রয়েছে।

বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীদ মাহমুদ খান বলেন, গত সোমবার সকালে বেড়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের সাময়িক বরখাস্তকৃত কাউন্সিলার বনগ্রাম দক্ষিণ মহল্লার হাজী মো. খোয়াজ মোল্লার ছেলে আব্দুর রাজ্জাক পৌর এলাকার একই মহল্লার মৃত সমর কুমার শীলের ১২ বছরের এক কিশোরী মেয়েকে কম্বল দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যান। ওই মহল্লার কাসেমের ছেলে আলমের বাড়ির পরিত্যক্ত একটি টিনের ঘরের মধ্যে ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে জোর করে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় রাজ্জাক। পরে মেয়েটি বাড়ি ফিরে তার মা ও বোনকে ঘটনাটি জানান।

এ ঘটনায় ওইদিন সোমবার রাতেই মেয়েটির মা শংকরী রানী শীল বাদী হয়ে বেড়া মডেল থানায় একটি মামলা করে। পরে বেড়া থানা পুলিশ মঙ্গলবার ভোর রাতে কাউন্সিলর আব্দুল রাজ্জাককে গ্রেফতার করে। পুলিশ তার নিকট থেকে একটি ধারালো ছুরি ও ধর্ষণের কিছু আলামত উদ্ধার করেছে। 

মঙ্গলবার বিকেলে রাজ্জাককে পাবনা জেল হাজতে প্রেরণ করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে দুইটি ধর্ষণ মামলা ও দুইটি মাদক আইনে মামলা রয়েছে। মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাবনা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ওসি।


বিডি-প্রতিদিন/২৩ জানুয়ারি, ২০১৯/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

up-arrow