Bangladesh Pratidin

হাওয়ায় দোলে

হাওয়ায় দোলে মায়ের কোলে      করছে যেন নেমন্ত, জুড়াই প্রাণ সোনালি ধান     আসছে দেখ হেমন্ত। আকুল করা মায়ায় ভরা      সবুজ ক্ষেতের রূপ, পাখির গানে হৃদয় টানে       মুগ্ধ ছড়ায় খুব। কৃষাণ মেয়ে নেচে গেয়ে     খুশির দোলায় চড়ে, পিঠার গন্ধে মন আনন্দে     আমোদ ফুর্তি ঝরে। ঘুম ঠুঁটেছে ফুল ফুটেছে…
শখের ডায়েরি

শখের ডায়েরি

তুই যে আমার শখের ডায়েরি কত স্বপ্নে গড়া! জানিস কী তুই তোকে নিয়ে লিখি ছন্দ ছড়া   কত ভালো বাসি তোকে বোঝাবো কেমন করে তোর…

খোকা আর খুকি

খোকা বলে খুকুরে চলো যাই পুকুরে হাঁস হয়ে ডুব দিতে করে ধুক ধুকুরে।   খুকু বলে খোকারে তুমি বড় বোকারে জোনাকি বাতি জ্বলে আঁধারেই থোকারে।   খুকু বলে ভাইরে চলো যাই বাইরে শরতের বাতাসেতে খুব সুখ পাইরে।   তারপর গেল- দুইজনে শরতের সব সুখ পেলো।

খোকার প্রশ্ন

খোকা ভাবে মনে মনে প্রশ্ন মাথায় ঘুরে, কাছে পেলে যে কাউকে তার প্রশ্ন দেয় যে ছুড়ে।   তার প্রশ্নে অবাক তো সবাই হতভম্বও হয়, তারে দেখলে এড়িয়ে যায় বন্ধুরাও পায় যে ভয়।   ‘স্রষ্টা আছে আমি মানি কিন্তু থাকেন কোথায়?’ এমন প্রশ্নের জবাব দিতে অনেকেই হিমশিম খায়।   বাবা বলেন, তিনি আছেন সবার হৃদয়জুড়ে, খোকা তখন খুঁজে ফিরে…

প্রজাপতি

ঐ সুদূরের নীল আকাশে রঙের ছড়াছড়ি, প্রজাপতির রঙিন ডানায় স্বপ্নের গড়াগড়ি।   রং-বেরঙের ফুলের মাঝে ঘুরে সারাক্ষণ, যেথায়-সেথায় উড়ে বেড়ায় চঞ্চলা তার মন।   হিজল তলার সবুজ ঘাসে প্রজাপতির আসর, মিষ্টি রোদে ফুল বিছানায় সাজায় রঙের বাসর।   রামধনুর-ই মতো তার রঙিন দুটি ডানা, ফুলে ফুলে ঘুরতে তার নেইতো কোনো মানা।

আমার গাঁ

আমার গাঁয়ের পাশ দিয়ে বহতা এক নদী সেই নদীতে নৌকা চলে সকাল-সন্ধ্যা নিরবধি।   নদী তীরে কাশবন বাতাস দেয় দোলা কৃষাণ মাঠে ফলায় ফসল ভরে আপন গোলা।   বনে বনে পাখি সব করে কলতান রাখালিয়া বাজায় বাঁশি জুড়ায় মন-প্রাণ!   ফুলে ফলের সমারোহ কিযে মিষ্টি ঘ্রাণ! এমন গাঁ নেই যে কোথাও আমার গাঁয়ের সমান।

লিখতে পারো তুমিও

ছোট্ট বন্ধুরা, তোমাদের জন্যই এই আয়োজন। ছড়া-কবিতা-গল্প লিখে পাঠাও আমাদের ঠিকানায়। সঙ্গে ঠিকানা দিও। ঠিকানা : বিভাগীয় সম্পাদক, ডাংগুলি বাংলাদেশ প্রতিদিন প্লট নং- ৩৭১/এ, ব্লক-ডি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, ঢাকা ইমেইল : danguli71@gmail.com
up-arrow