Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৩১ মে, ২০১৬ ২৩:৫২
ফরাসউদ্দিন কমিটির সুপারিশ
দোষী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেমে গচ্ছিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির জন্য গঠিত ফরাসউদ্দিন তদন্ত কমিটি এ জন্য দায়ী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করেছে। পাশাপাশি ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে তা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকে প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কার এনে সক্ষমতা বৃদ্ধিরও সুপারিশ করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি বাংলাদেশ ব্যাংকের কয়েকজন কর্মকর্তাকে দোষী করে তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়ার সুপারিশ করেছে। তারা হলেন— অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড বাজেটিং বিভাগের যুগ্ম পরিচালক জুবায়ের বিন হুদা, উপ-পরিচালক মিজানুর রহমান ভূঁইয়া, জিএম আবদুল্লাহ ছালেহীন, শেখ রিয়াজউদ্দিন ও রফিক আহমেদ মজুমদার। এদের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা এবং অবহেলার কারণে সার্ভার হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া গভর্নর সচিবালয় বিভাগে কর্মরত মইনুল ইসলাম ও অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড বাজেটিং বিভাগের শেখ রিয়াজউদ্দিন তাদের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ‘কমপ্রোমাইজড’ হতে দিয়ে মহাবিপত্তি সৃষ্টি করেন বলে মনে করে তদন্ত কমিটি। এতে আরও বলা হয়, জুবায়ের বিন হুদা ও জিএম আবদুল্লাহ ছালেহীনের ইউজার আইডির পাসওয়ার্ড চুরি করে তা ব্যবহার করেছে হ্যাকাররা। তারা তাদের পাসওয়ার্ড চুরির বিষয়টি জানার পরও তা আমলে নেননি। এতে তারা দায়িত্ব পালনে চরম অবহেলা ও কাণ্ডজ্ঞানহীনের মতো কাজ করেছেন। তদন্ত কমিটির রিপোর্টে শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটি বাতিল করে রবিবার ছুটির ব্যবস্থা করা, অ্যাকাউন্ট অ্যান্ড বাজেটিং বিভাগে লোক নিয়োগের আগে সংশ্লিষ্টদের নীতি নৈতিকতা ও পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড সম্পর্কে খোঁজখবর নেওয়া, নৈতিক শিক্ষা দেওয়া এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের কর্মকর্তাদের পৃথকভাবে প্রশিক্ষণের সুপারিশ করেছে। নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেমে রক্ষিত অর্থ চুরির দায় নিরাপত্তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সুইফটের। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা আরও সতর্ক হলে বিপর্যয়ের ঘটনা যে এড়ানো যেত, তাতে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই।  এ ক্ষেত্রে যারা যথেষ্ট দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে পারেননি তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংক পদক্ষেপ নেবে আমরা এমনটিই দেখতে চাই।




up-arrow