Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১৫ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১৪ জুন, ২০১৬ ২৩:২৪
প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা
দুই পবিত্র মসজিদ সুরক্ষায় বাংলাদেশ পাশে থাকবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভার বৈঠকে বলেছেন, পবিত্র মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববী রক্ষায় প্রয়োজনে বাংলাদেশ সৌদি আরবে সৈন্য পাঠাবে। তবে বাংলাদেশ সৌদি নেতৃত্বাধীন কোনো সামরিক জোটে যাবে না। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যটি সময়ের প্রেক্ষাপটে তাত্পর্যের দাবিদার। বাংলাদেশ নীতিগতভাবে জোটনিরপেক্ষ নীতিতে বিশ্বাসী এবং সেহেতু কোনো সামরিক জোটে শরিক হওয়া বাংলাদেশের জন্য বেমানান। তবে ইসলামের দুই পবিত্র স্থাপনা মসজিদুল হারাম ও মসজিদুল নববী যেহেতু সৌদি আরবে সেহেতু পবিত্র ওই দুই মসজিদ আক্রান্ত হলে তা মোকাবিলায় বাংলাদেশ ধর্মীয় সংবেদনশীলতার কারণেই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে যে রুখে দাঁড়াবে প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে তা স্পষ্ট করেছেন। স্মর্তব্য, সৌদি আরবের নেতৃত্বে সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদবিরোধী যে জোট আত্মপ্রকাশ করেছে তার সঙ্গে বাংলাদেশ ইতিমধ্যে একাত্মতা ঘোষণা করেছে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকে স্পষ্ট করা হয়েছে, তাদের এই জোটে সামরিক দিক যেমন রয়েছে তেমন রয়েছে অসামরিক সহযোগিতার দিক। বাংলাদেশ শেষোক্ত দিক থেকে সৌদি আরবের সঙ্গে একত্রে কাজ করবে। সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের অবস্থান যেহেতু দৃঢ়, সেহেতু মুসলিম দেশগুলো এই অশুভ দৈত্যের বিরুদ্ধে একাট্টা ভূমিকা রাখুক তা বাংলাদেশের জন্যও প্রত্যাশিত। তবে কোনো অবস্থায় বাংলাদেশ সামরিক জোটে অংশগ্রহণের দিকে ঝুঁকবে না। প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট বক্তব্যের মাধ্যমে সৌদি জোটে বাংলাদেশের ভূমিকা কী হবে তা নিয়ে যে সংশয় বিরাজ করছিল তার ইতি টানা হলো। বাংলাদেশ জাতিসংঘ শান্তিবাহিনীতে সবচেয়ে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। সামরিক জোটের বিরুদ্ধে হলেও বিশ্বশান্তি রক্ষায় বাংলাদেশের অগ্রণী ভূমিকা সব মহলেই প্রশংসিত। পবিত্র মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববী বিশ্বের দেড়শ কোটি মানুষের ধর্মীয় আবেগের স্থান। ধর্মীয় তাগিদেই এই দুই মসজিদের নিরাপত্তা রক্ষাকে বাংলাদেশের মানুষ ধর্মীয় কর্তব্য হিসেবে বিবেচনা করে। ভবিষ্যতে কখনো দুই পবিত্র মসজিদ হুমকির মুখে পড়লে সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের করণীয় কী হবে তা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে।  বাংলাদেশের এই দৃঢ় অবস্থান অন্যান্য মুসলিম দেশকেও যে অভিন্ন সিদ্ধান্ত নিতে অনুপ্রেরিত করবে তা সহজেই অনুমেয়।

ষড়যন্ত্রকারীদের জন্য তা কঠোর হুঁশিয়ারি বলেই বিবেচিত হবে।




up-arrow