Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৫১
গুলশানের জঙ্গি হামলা
জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে চাই জাতীয় ঐক্য

আন্তর্জাতিক জঙ্গি দলের সদস্যরা বাংলাদেশে বড় ধরনের হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জল্পনা-কল্পনা চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। অবশেষে তা বাস্তবে পরিণত হলো এবং এক রক্তাক্ত ঘটনার মুখোমুখি হলো সমগ্র জাতি। গুলশানের কূটনীতিকপাড়ার একটি রেস্টুরেন্টে শুক্রবার রাতের জঙ্গি হামলায় দুজন পুলিশ কর্মকর্তা ও ছয় জঙ্গিসহ নিহত হয়েছে অন্তত ২৮ জন। রেস্টুরেন্টে যেসব দেশি-বিদেশি নাগরিককে জিম্মি করেছিল তাদের একাংশকে রাতেই হত্যা করে অসভ্য ও বর্বর জঙ্গিরা। সকালে কমান্ডো অভিযানের পর বাকি সবাইকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। জঙ্গি হামলার শুরুতেই নিহত হন দুজন পুলিশ কর্মকর্তা। রেস্টুরেন্টে সন্ত্রাসীদের চড়াও হওয়ার খবর শুনে তারা সেখানে হাজির হতেই জঙ্গিদের গুলি ও বোমা হামলার মুখে পড়েন। স্মর্তব্য, ছয়-সাতজন জঙ্গি আগ্নেয়াস্ত্র ও বোমা নিয়ে গুলশানের রেস্টুরেন্টে চড়াও হয়। তারা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সেখানে অবস্থানরত দেশি-বিদেশিদের। জঙ্গিরা তাদের আটক নেতা সাইফুল্লাহর মুক্তি এবং নিজেদের নিরাপদে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানায়— নতুবা জিম্মিদের হত্যার হুমকি দেয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জিম্মি হয়ে পড়া দেশি-বিদেশিদের নিরাপত্তার স্বার্থে শান্তিপূর্ণভাবে পরিস্থিতি মোকাবিলার চেষ্টা করেন। সে চেষ্টা ব্যর্থ হলে জিম্মিদের উদ্ধারে অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জিম্মিদের উদ্ধারে নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ডোরা যে সাফল্যের পরিচয় দিয়েছেন তা প্রশংসার দাবিদার। কমান্ডো অভিযানে ছয় জঙ্গির পাঁচজনই নিহত হয়েছে। সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে আহত অবস্থায়। আমরা আশা করব আটক জঙ্গিকে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে জঙ্গিবাদের সঙ্গে যুক্তদের হদিস বের করার চেষ্টা চালানো হবে। আমরা বারবার বলে আসছি, বাংলাদেশের মানুষ জঙ্গিবাদ বা চরমপন্থার বিরোধী। এ দেশে ইসলাম এসেছে সুফিবাদের সাধক পীর-আওলিয়াদের মাধ্যমে। জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সব মানুষের প্রতি ভালোবাসার বাণী বিলিয়েছেন তারা। ইসলামে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ চূড়ান্তভাবে হারাম এবং এই ভুল পথের অনুসারীরা কোনোভাবেই এ ধর্মের অনুসারী নয়।   যারা জঙ্গিবাদ চর্চার মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের জন্য চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করছে তাদের প্রতিহত করতে দৃঢ় জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।   এর অন্যথা হওয়া উচিত নয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow