Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০২
বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর বক্তব্যের প্রতিবাদ

গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ প্রতিদিনের খোলা কলামে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তমের ‘সবাইকে মুরিদ ভাবা উচিত নয়, মানুষ ভাবতে শিখুন’ শিরোনামের লেখাটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। কলামে তিনি অনেক কিছু লেখার অবতারণা করেছেন, যা তার নিজস্ব বিশ্লেষণ। কিন্তু তার মতো একজন দায়িত্বশীল ব্যক্তির কাছ থেকে একটি অসত্য ও বিভ্রান্তিকর বক্তব্য আসায় আমরা বিস্মিত ও হতবাক হয়েছি। তিনি তার দীর্ঘ কলামের এক পর্যায়ে লিখেছেন, “স্বাধীনতা যুদ্ধে চরমোনাই ছিল পাকিস্তানঘেঁষা”। এ বক্তব্য তিনি কোন তথ্যের ভিত্তিতে দিলেন! তিনি একজন খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা, তাঁকে আমরা যথেষ্ট সম্মান করি। কলাম লেখার আগে তিনি যদি বরিশাল ও চরমোনাই অঞ্চলের মুক্তিযোদ্ধাদের কাছ থেকে সঠিক তথ্য জেনে নিতেন তাহলে হয়তো তার এ তথ্য বিভ্রাট হতো না। বরিশাল জেলা ও চরমোনাই অঞ্চলের সকল মুক্তিযোদ্ধাই জানেন যে, স্বাধীনতা যুদ্ধে চরমোনাইর মরহুম পীর সাহেব মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কাজ করেছেন এবং চরমোনাই মাদরাসা ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের আশ্রয়স্থল। চরমোনাই অঞ্চলের সংখ্যালঘুরাও চরমোনাই মাদরাসায় নিরাপত্তার সাথে ছিলেন। এখনো চরমোনাই অঞ্চলের সংখ্যালঘুরা স্বাধীনতা যুদ্ধে চরমোনাইর ভূমিকা কি ছিল তার সাক্ষী হয়ে আছেন। কাদের সিদ্দিকীর মতো একজন খ্যাতিমান মানুষের কাছ থেকে এ ধরনের বিভ্রান্তিকর বক্তব্য কারও কাছেই প্রত্যাশিত নয়।  আমরা একান্ত বাধ্য হয়েই এই অনাকাঙ্ক্ষিত বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ

মহাসচিব, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow