Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৬
গর্ভবতী মহিলাদের ধূমপান ভয়ঙ্কর ধরনের ক্ষতিকর

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, ধূমপান সন্দেহাতীতভাবে গর্ভাবস্থায় মা ও শিশুর স্বাস্থ্যগত ক্ষতিসাধন করে। গর্ভধারণকালে মায়ের ধূমপান abruptio placentae, placenta previa. রক্তক্ষরণ প্রভৃতি জটিল রোগের জন্ম দিয়ে থাকে।

এমনকি, অকালে ঝিল্লি ফেটে যেতে পারে এবং অসময়ে প্রসব হতে পারে। মায়ের ধূমপান গর্ভাবস্থায় শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধিতে বাধা সৃষ্টি করে যার ফলে শিশুর গড়পড়তা ওজন ২০০ গ্রাম কমে যেতে পারে এবং কম ওজনের শিশু জন্মদানের ঝুঁকিকে দ্বিগুণ করে দেয়। তাছাড়া গবেষণায় আরও দেখা যায়, মায়ের ধূমপানের ফলে উচ্চহারে ভ্রূণ ও সদ্যোজাত শিশুর মৃত্যু ঘটে। ধূমপানের ফলে ‘হঠাৎ শিশু মৃত্যুর লক্ষণ’ ধূমপান (sudden Infant Death Syndrome-SIDS)- এর সম্ভাবনা দেখা যায়। ধূমপান ইউরোপ, আমেরিকায় মায়েদের দুর্বল গর্ভাবস্থার এক গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তনযোগ্য কারণ।

শিশু জন্মানোর পর তার চারপাশে মা-বাবার নিয়মিত ধূমপান শিশুদের শ্বাস-প্রশ্বাস তন্ত্রে প্রদাহ এবং middle ear disease-এর মতো স্বাস্থ্য সমস্যার সৃষ্টি করে। গর্ভবতী মায়েদের ধূমপান বন্ধ রাখার ফলে ভ্রূণের স্বাভাবিক বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে এবং হাঁপানি, SIDS শ্বাস-প্রশ্বাস তন্ত্রে প্রদাহ সৃষ্টি ইত্যাদির ঝুঁকি কমিয়ে তারা স্বাস্থ্যবান শিশুর জন্ম দিতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক গবেষণায় দেখা গেছে, শিশুর জন্মপূর্ব অবস্থায় মায়েদের ধূমপান বর্জন কর্মসূচিতে যে বিশাল সুবিধা পাওয়া গেছে সেগুলো হলো জনপ্রতি এক মার্কিন ডলার খরচের মাধ্যমে সঞ্চয় হয়েছে তিন মার্কিন ডলার। যে দলের ওপর নিরীক্ষা চালানো হয়েছে তাদের ধূমপান বর্জন করার সম্ভাবনা যাদের ওপর নিরীক্ষা চালানো হয়নি তাদের চেয়ে আড়াইগুণ বেশি।

     —ডা. আলমগীর মতি

up-arrow