Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চাটাইয়ে মুড়িয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান!
  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৫
ইতিহাস
চরিত্র ও কৃতিত্ব

চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য : লেনপুল যথার্থই বলেন, ‘মহামতি সুলেমান, যিনি ২৬ বছর বয়সে ১৫২০ খ্রিস্টাব্দে সিংহাসনে আরোহণ করেন এবং প্রায় অর্ধশতাব্দী সর্বোত্কৃষ্ট গৌরবের সঙ্গে শাসন করেন। তার সুদীর্ঘ রাজত্ব ইউরোপের জন্য খুবই তাত্পর্যপূর্ণ ছিল। তার রাজত্বকালে এরূপ গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাবলিতে সমৃদ্ধ ছিল যে, এর জন্য একটি বিশাল গ্রন্থখণ্ডের প্রয়োজন।’ তিনি আরও বলেন, ‘তুরস্কের ইতিহাসে সুলেমান ছিলেন সম্ভবত সর্বশ্রেষ্ঠ। তার ব্যক্তিগত চারিত্রিক গুণাবলি ছিল অসাধারণ, তার মেধা, ন্যায়পরায়ণতা, মহানুভবতা, দয়া এবং ভদ্রতাজ্ঞান কিংবদন্তিস্বরূপ ছিল এবং তার বুদ্ধিমত্তা, নিষ্কলুষ চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের কোনো তুলনা ছিল না।’ সুলতান সুলেমান ছিলেন একাধারে দিগ্বিজয়ী বীর, বলিষ্ঠ প্রশাসক, সুচতুর কূটনীতিবিদ, সুযোগ্য আইনপ্রণেতা, একনিষ্ঠ জনসেবক ও নিষ্ঠাবান মুসলমান। এভারসলে বলেন, ‘তার ব্যক্তিগত জীবন কলুষমুক্ত ছিল।’ তিনি পরধর্মসহিষ্ণু ছিলেন এবং বিজিতদের ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালনে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দিতেন। বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপনে সুলেমান দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন এবং এর ফলে খ্রিস্টান ও মুসলমানদের মধ্যে সমঝোতার সৃষ্টি হয়। তিনি রুকসানা নামে একজন প্রভাবশালী রুশ মহিলাকে বিয়ে করেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow