Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০৯
টাইগারদের শততম জয়
আত্মপ্রসাদ নয় আত্মপ্রত্যয়ী হতে হবে

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে শেষ ওয়ানডেতে ১৪১ রানের ব্যবধানে বিশাল জয় পেয়েছে টাইগাররা। এ জয়ের বদৌলতে সফরকারী দলের বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের কৃতিত্ব দেখিয়েছে তারা। নবীন আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট খেলুড়ে দেশ বাংলাদেশের সিরিজ জয় আহামরি কোনো ঘটনা নয়। তবে তাত্পর্যের বিষয় হলো এ জয়ের মাধ্যমে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের শততম জয়ের রেকর্ড স্থাপিত হয়েছে। ইংল্যান্ডের সঙ্গে মোকাবিলার আগে টাইগাররা নিজেদের স্বাভাবিক চেহারায় ফিরতে পেরেছে এটিও এক বড় অর্জন। সন্দেহ নেই আইসিসিআই’র সহযোগী সদস্য দেশগুলোর মধ্যে আফগানিস্তান এক সম্ভাবনাময় নাম। ভারতের মতো ক্রিকেট পরাশক্তিকেও তারা হারিয়েছে দাপটের সঙ্গে খেলে। তারপরও মূলধারার ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলোর সঙ্গে আফগানদের পার্থক্য যে ব্যাপক তা চোখে পড়ার মতো। সিরিজ জয় করলেও বাংলাদেশ দলের দীর্ঘ অবকাশের ছাপ অনুভূত হয়েছে প্রথম দুই খেলায়। হারতে হারতে প্রথম খেলায় তারা জয়ী হয়েছে অভিজ্ঞতার গুণে। দ্বিতীয় খেলায় এক রানের ব্যবধানে আফগানিস্তান জিতে বাংলাদেশকে কার্যত লজ্জায় ফেলে দেয়। শেষ ম্যাচে টাইগাররা তাদের নামের সঙ্গে সুবিচার করেছে দাপটের সঙ্গে জিতে। সফররত আফগানিস্তান প্রথম দুই ম্যাচে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার সুবাদে শেষ ম্যাচে জিতে সিরিজ জয়ের স্বপ্নও দেখছিল। কিন্তু শেষ ম্যাচে স্বপ্নভঙ্গের বেদনাই তাদের সাথী হলো। তামিম ইকবালের দাপুটে সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের রান সাড়ে তিনশতে ঠেকতে পারে এমন আশায়ও বুক বেঁধেছিলেন সমর্থকদের কেউ কেউ। কিন্তু মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বহীন ব্যাটিংয়ে রানের দৌড় ২৭৯-তেই থেমে যায়। বল হাতে বাংলাদেশ দল আফগানদের বেঁধে ফেলে মাত্র ১৩৮ রানে। আগের দিন আফগানদের কাছে হেরে বোকা বনে যাওয়া বাংলাদেশ দল শনিবার মিরপুরের মাঠে বুঝিয়ে দিয়েছে তারাই সেরা। আফগানদের বিরুদ্ধে দাপুটে জয়ের মাধ্যমে টাইগাররা সফররত ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আস্থার সঙ্গে খেলার সুযোগ পাবে। ইংল্যান্ডের মতো অভিজাত দলের মোকাবিলার আগে আফগানদের সঙ্গে লড়াইয়ে প্রস্তুতিটা খুব ভালোভাবেই সম্পন্ন করার সুযোগ পেয়েছে মাশরাফি বাহিনী। আমরা আশা করব শততম জয় টাইগারদের আরও আত্মপ্রত্যয়ী ও দায়িত্বশীল করে তুলবে। ভালো কিছু করার জন্য তারা উন্মুখ হয়ে উঠলে সেটিই হবে এক বড় অর্জন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow