Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০৬
খাদিজার ওপর হামলা
বর্বর বদরুল যেন পার না পায়

সিলেটে বদরুল নামের এক ছাত্রলীগ নেতা কুপিয়ে জখম করেছে খাদিজা নামের এক কলেজছাত্রীকে। গুরুতর আহত ওই কলেজছাত্রী রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসকরা বলেছেন এ ধরনের রোগীর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা মাত্র ৫ ভাগ। সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রী গত সোমবার পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলেন সিলেটের এমসি কলেজে। পরীক্ষা থেকে ফেরার সময় কলেজের পুকুর পাড়ে প্রকাশ্যে খাদিজাকে ধারালো চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে আহত করে বদরুল। ধারে কাছের লোকজন চিৎকার করে বদরুলকে নিরস্ত করার চেষ্টা করলেও কাজ হয়নি। কেউ কেউ তাকে বাধা দিতে এগিয়ে এলেও হামলাকারী দুর্বৃত্ত রক্তাক্ত চাপাতি হাতে ছুটে আসায় তারা পিছু হটে। শেষ পর্যন্ত প্রত্যক্ষদর্শীরা দূর থেকে বদরুলকে লক্ষ্য করে ঢিল ছোড়া শুরু করলে সে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং লোকজনের কাছে ধরা পড়ে। জনতা তাকে পিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। কথিত ছাত্রলীগ নেতা দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করে আসছিল খাদিজাকে। ২০১২ সালে একবার উত্ত্যক্ত করার সময় স্থানীয় লোকজনের গণপিটুনির শিকার হয় ওই ছাত্রলীগ নেতা। পরবর্তীতে গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের জামায়াত-শিবির কর্মী বানিয়ে মামলা করা হয় ছাত্রলীগ নেতার পক্ষ থেকে। বদরুল স্বীকার করেছে খাদিজাকে কোপানোর জন্য সে দীর্ঘক্ষণ ধরে অপেক্ষায় ছিল। মারাত্মকভাবে আহত খাদিজাকে সিলেট থেকে গত সোমবারই ঢাকায় এনে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ বর্বর ঘটনা সারা দেশের জনমনে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, খাদিজা হত্যা চেষ্টার সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। চারদিকের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভের মধ্যে ছাত্রলীগ দাবি করেছে ঘাতক বদরুল তাদের সংগঠনের কেউ নয়। আমরা আশা করব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী অপরাধীকে বিচারের সম্মুখীন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পিছপা হবে না। আগামীতে কেউ যাতে কোনো নারীকে উত্ত্যক্ত করা বা তার ওপর হামলা চালাবার সাহস যাতে না পায় তা নিশ্চিত করা হবে। স্কুল-কলেজ শিক্ষার্থী এবং কর্মজীবী নারীদের উত্ত্যক্ত করার ঘটনা প্রতিদিনই ঘটছে। প্রতিকার না থাকায় দুর্বৃৃত্তরা তাদের প্রাণ কেড়ে নেওয়ার সাহসও দেখাচ্ছে। আইন তার নিজস্ব গতিতে চললেই কেবল এই অকাম্য অবস্থার অবসান ঘটতে পারে। আমরা আশা করব খাদিজা হত্যা চেষ্টার দৃষ্টান্তমূলক বিচারের মাধ্যমে বখাটেদের দৌরাত্ম্যে বাদ সাধা হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow