Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:১১
ভেষজ
তুলসীর গুণাগুণ
তুলসীর গুণাগুণ

তুলসী গাছ ও এর পাতার অনেক স্বাস্থ্যগুণ রয়েছে। নিচে তা দেওয়া হলো :

উচ্চরক্তচাপ ও কোলেস্টেরল কমিয়ে হৃৎপিণ্ডের রক্ত সরবরাহের মাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে।

লিভারের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।

হাড়ের গাঁথুনিতে ব্যথা দূর করে এবং শরীরের কাটাছেঁড়া দ্রুত শুকাতে অবদান রাখে।

ঠাণ্ডা মৌসুমে ছোট বাচ্চাদের তুলসীর পাতা খাওয়ালে কৃমি দূর হবে এবং মাংসপেশি ও হাড় হবে শক্তিশালী।

জ্বর হলে পানির মধ্যে তুলসী পাতা, গোলমরিচ এবং মিসরি মিশিয়ে ভালো করে সেদ্ধ করে নিন। অথবা উপরোক্ত তিনটি দ্রব্য মিশিয়ে বড়ি তৈরি করুন। দিনের মধ্যে তিন-চারবার ওই বড়িটা পানি দিয়ে সেবন করুন। জ্বর খুব তাড়াতাড়ি সেরে যাবে।

কাশি হলে তুলসী পাতা এবং আদা একসঙ্গে পিষে মধুর সঙ্গে মিশিয়ে খান। এতে উপকার পাবেন।

ডায়রিয়া হলে ১০-১২টি পাতা পিষে রস খেয়ে ফেলুন।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে দিনে ৪-৫ বার তুলসী পাতা চিবান।

আপনার শরীরে যদি কোনো রকম ঘা থাকে তাহলে তুলসী পাতা এবং ফিটকিরি একসঙ্গে পিষে ঘার স্থানে লাগান। সকাল বেলা খালি পেটে তুলসী পাতা চিবিয়ে রস পান করলে খাবারে রুচি বাড়ে। নিয়মিত তুলসীর রস পানে হৃদরোগেও উপকার পাওয়া যায়। চোখের সমস্যা দূর করতে রাতে কয়েকটি তুলসী পাতা পানিতে ভিজিয়ে রেখে ওই পানি দিয়ে সকালে চোখ ধুয়ে ফেলুন।

সর্দি, কাশি, জ্বর, বমি, ডায়রিয়া, কলেরা, কিডনির পাথর, মুখের আলসারসহ চোখের বিভিন্ন রোগে তুলসী পাতা ওষুধ হিসেবে ব্যবহূত হয়। দাঁতের রোগে উপশমকারী বলে টুথপেস্ট তৈরিতে ব্যবহার করা হয়।

     ডা. আলমগীর মতি

এই পাতার আরো খবর
up-arrow