Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৫
ব্লগার হত্যার অপনায়ক গ্রেফতার
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জন্য বড় সাফল্য

খুনি জঙ্গি নেতা রেজওয়ানুল আজাদ রানাকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের সামর্থ্যের পরিচয় দিয়েছে। ব্লগার, প্রকাশক ও লেখক হত্যার নেতৃত্বদানকারী উগ্রপন্থি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এ শীর্ষ নেতা নিজের নাম গোপন করে কখনো ঢাকা কখনো কুয়ালালামপুরে অবস্থান করছিলেন।

এবিটির স্লিপার সেলের মাধ্যমে মুক্তমনের লেখক, প্রকাশক ও ব্লগারদের হত্যাকাণ্ডে মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন তিনি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জন্য বড় ধরনের হুমকি সৃষ্টি করেছিল এ জঙ্গি নেতার কার্যকলাপ। শেষ পর্যন্ত কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের জালে ধরা দিতে হয়েছে একাধিক পৈশাচিক খুনের এ অপনায়ককে। স্মর্তব্য, ২০১৩ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি রাজীব হায়দার হত্যার ঘটনায় ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর রানাকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয় আদালত। ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায়, ৩০ মার্চ তেজগাঁওয়ে ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবু, ১২ মে সিলেটে ব্লগার অনন্ত বিজয় দাস, ৭ আগস্ট ঢাকার গোড়ানে ব্লগার নিলয় নীল, ৩১ অক্টোবর শাহবাগে প্রকাশক ও লেখক ফয়সল আরেফিন দীপন হত্যা ও লালমাটিয়া শুদ্ধস্বরের মালিক আহমেদুর রশীদ চৌধুরী টুটুল হত্যাচেষ্টা এবং সর্বশেষ গত বছরের ২৫ মার্চ কলাবাগানে জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয় হত্যার ঘটনার সঙ্গে সিরিয়াল খুনের অপনায়ক রানার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ সম্পর্ক রয়েছে। দুর্ধর্ষ এ জঙ্গি ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিন ও মণিপুর স্কুলের শিক্ষক হত্যাচেষ্টা মামলারও চার্জশিটভুক্ত আসামি। নর্থ সাউথে পড়ার সময় তিনি জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েন। আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের আধ্যাত্মিক নেতা মাওলানা জসিম উদ্দিন রাহমানীর ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিগণিত হতেন এ রক্ত হিম করে দেওয়া খুনি। শুরুর দিকে এবিটির সঙ্গে যুক্ত থাকলেও একপর্যায়ে রানা নব্য জেএমবিতে যোগ দেন। তার মাধ্যমেই নর্থ সাউথসহ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ে। সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মীয় কূপমণ্ডূকতার বিরুদ্ধে সংগ্রামের অনুপ্রেরণা জোগায় যে ২১ ফেব্রুয়ারি, ঐতিহাসিক সেদিনকে সামনে রেখে লেখক, প্রকাশক ও ব্লগার হত্যার এক ঘৃণ্য দানবকে গ্রেফতারের ঘটনা মুক্তবুদ্ধি ও মুক্ত বিবেকের অধিকারী সব মানুষের জন্য সুখবর।   আমরা আশা করব আটককৃত অপরাধীর কাছ থেকে বাংলাদেশের জঙ্গি তৎপরতায় কারা জড়িত এবং এর মদদদাতাদের তথ্য বের করতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা সক্ষম হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow