Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শনিবার, ১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৭ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৩৫
ব্যবসায়ীদের টাকা ফেরত দান
সর্বোচ্চ আদালতের আদেশ প্রশংসনীয়
bd-pratidin

ওয়ান-ইলেভেনের সময় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে আদায় করা অর্থ ফেরত দেওয়ার হাই কোর্টের রায় বহাল রেখেছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ গত বৃহস্পতিবার এ রায় দেয়। ওয়ান-ইলেভেনের সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে বিভিন্ন ব্যক্তি ও ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১ হাজার ২০০ কোটি টাকারও বেশি আদায় করা হয়। বিধিবহির্ভূতভাবে অর্থ আদায়ের বিরুদ্ধে ১১টি রিট করা হয় বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে। হাই কোর্ট এ-সংক্রান্ত দেওয়া রায়ে ব্যবসায়ীদের অর্থ ফেরতদানের নির্দেশ দেয়। সর্বোচ্চ আদালতে সে রায় বহাল থাকায় রিটকারীরা তাদের অর্থ ফেরত পাবেন। স্মর্তব্য, ২০১০ সালে সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে ঘোষণা দেওয়া হয় তত্ত্বাবধায়ক আমলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে বিধিবহির্ভূতভাবে যে অর্থ আদায় করা হয়েছে তা ফেরত দেওয়া হবে। কিন্তু এ প্রতিশ্রুতি পালনে পরবর্তীতে কোনো উদ্যোগই নেওয়া হয়নি। সর্বোচ্চ আদালতের আদেশের ফলে ব্যবসায়ীরা তাদের অর্থ ফেরত পাবেন এটি নিশ্চিত হলেও কীভাবে ফেরত পাবেন তা জানা যাবে পূর্ণাঙ্গ আদেশ পাওয়ার পর। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের আদেশ ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের মধ্যে স্বস্তি ফিরিয়ে আনবে বলে আশা করা হচ্ছে। ওয়ান-ইলেভেনের সময় দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায় যে হয়রানি ও নিগ্রহের শিকার হয় তা ছিল এক নজিরবিহীন ঘটনা। জোর করে অর্থ আদায় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে তাদের উৎসাহে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে। দেশি-বিদেশি বিনিয়োগের জন্যও যা ছিল অশনিসংকেত। উচ্চ আদালতের রায় সর্বোচ্চ আদালতেও বহাল থাকায় ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের আস্থার সংকট কাটিয়ে উঠতে অবদান রাখবে এমনটিই প্রত্যাশিত। সরকার যেহেতু ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে তত্ত্বাবধায়ক আমলে বিধিবহির্ভূতভাবে আদায় করা অর্থ ফেরতদানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, সেহেতু এ ক্ষেত্রে তারা ইতিবাচক মনোভাবের পরিচয় দেবে— এমনটিই আশা করা যায়। অতীতের ক্ষত নিরসনে যা সরকারের কর্তব্য বলেই বিবেচিত হওয়া উচিত।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow