Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:২৯
সবচেয়ে উত্তম হালাল কামাই
মাওলানা আবদুর রশিদ
bd-pratidin

একদা আইয়ুব নবী (আ.) গোসল করছিলেন। এমতাবস্থায় তাঁর সম্মুখে একদল সোনার পঙ্গপাল পড়লে তিনি তা নিজের কাপড়ে ভরতে লাগলেন। মহান আল্লাহ তাকে বললেন, হে আইয়ুব! আমি কি তোমাকে এসব থেকে অমুখাপেক্ষী (ধনী) করিনি? আইয়ুব বললেন, অবশ্যই হে আমার প্রতিপালক, তোমার ইজ্জতের কসম! কিন্তু তোমার বরকত থেকে আমার এতটুকু অমুখাপেক্ষিতা নেই।

সুতরাং সত্ভাবে ধনী হওয়া কোনো ত্রুটি নয়। পবিত্র পথে উপার্জন করে তা যদি পবিত্র পথে ব্যয় করা হয় এবং আল্লাহর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা হয়, তাহলে তা নিশ্চয়ই এক মহান ইবাদত। রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, সৎ মানুষের জন্য পবিত্র মাল কতই না উত্তম!

তাছাড়া হালাল রুজি-রুটির জন্য মানুষকে উপার্জনের পথ অবলম্বন করতেই হয়। নচেৎ অভাবে স্বভাব নষ্ট হয়। আর আলস্য বা পরিশ্রম বিমুখতা জননী হলে তার ছেলের নাম ক্ষুধা এবং মেয়ের নাম চুরি।

মহান আল্লাহ বান্দাকে হালাল ও পবিত্র বস্তু আহার করতে আদেশ করেছেন। তিনি বলেন-

হে লোক সকল! পৃথিবীতে যা কিছু বৈধ ও পবিত্র খাদ্যবস্তু রয়েছে তা থেকে তোমরা আহার কর এবং শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ কর না, নিঃসন্দেহে সে তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু। (সূরা বাকারা ১৬৮)।

হে বিশ্বাসীগণ! আমি তোমাদের যে রুজি দিয়েছি তা থেকে তোমরা শুধু তাঁরই উপাসনা করে থাক। (সূরা বাকারা ১৭২)।

তিনি আরও বলেন,

আল্লাহ তোমাদের যে জীবিকা দান করেছেন তা থেকে বৈধ ও উত্কৃষ্ট বস্তু ভক্ষণ কর এবং আল্লাহকে ভয় কর, যাঁর প্রতি তোমরা সবাই বিশ্বাসী। (সূরা মায়েদাহ ৮৮)।

মানুষ যেসব উপায়ে বৈধ উপার্জন করে থাকে তা সাধারণত চার ধরনের—

১. হস্তশিল্প বা নিজ হাত দ্বারা কারিগরির কোনো কাজ করে, কোনো জিনিস প্রস্তুত করে তা বিক্রয়ের মাধ্যমে উপার্জন।

২. চাকরি বা মজদুরি : নির্ধারিত অর্থের বিনিময়ে অপরের কাজ করে উপার্জন।

৩. ব্যবসা-বাণিজ্য : পণ্য ক্রয় করে অপেক্ষাকৃত বেশি মূল্যে বিক্রয় করে লাভ করার মাধ্যমে উপার্জন।

৪. কৃষিকাজের মাধ্যমে জমিতে ফসল ফলিয়ে খাদ্য ও অর্থ উপার্জন। উপরোক্ত চারটি পেশাই মানব-সমাজের জন্য সমানভাবে জরুরি।

মহান আল্লাহ মানুষকে সৃষ্টি করেছেন। তিনিই সবাইকে রুজি দিয়ে থাকেন। কিন্তু তিনি কোনো উসিলার মাধ্যমে সেই রুজি বণ্টন করে থাকেন। আর সেই উসিলা ও উপকরণ অবলম্বন করতে হয় মানুষকে। আল্লাহ আমাদের সবাইকে সত্ভাবে উপার্জন করার তাওফিক দান করুন।

            লেখক : ইসলামী গবেষক।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই পাতার আরো খবর
up-arrow