Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:০২

ভয়াবহ মামলাজট

সমস্যার সমাধানে উদ্যোগ নিন

ভয়াবহ মামলাজট

মামলার বোঝায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে দেশের বিচারব্যবস্থা। দেশের আদালতগুলোয় এখন ঝুলে থাকা মামলার সংখ্যা ৩৫ লাখ ৬৯ হাজার ৭৫০টি। মামলা নিষ্পত্তিতে সরকার ও দেশের বিচারব্যবস্থার কর্ণধারদের সদিচ্ছার অভাব না থাকলেও নানা সীমাবদ্ধতায় আদালতগুলোয় মামলার সংখ্যা বাড়ছে। বিদায়ী ২০১৮ সালেই মামলাজটের তালিকায় যুক্ত হয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজার ২৫০টি। অথচ আগের বছরের তুলনায় ২০১৮ সালে সারা দেশে মামলা নিষ্পত্তির হার ছিল তুলনামূলক বেশি। তবে মামলা অন্য বছরের তুলনায় বেশি হওয়ায় জটও বেড়েছে। সুপ্রিম কোর্টের তথ্যানুযায়ী, গত বছর ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত উচ্চ আদালতে অর্থাৎ আপিল বিভাগ ও হাই কোর্টে বিচারাধীন মামলা ৫ লাখ ৩৭ হাজার ৯৪টি। এর মধ্যে আপিল বিভাগে ২০ হাজার ৪৪২ ও হাই কোর্টে ৫ লাখ ১৬ হাজার ৬৫২টি মামলা বিচারাধীন। ২০১৭ সালের শেষ দিন পর্যন্ত আপিল বিভাগে ১৬ হাজার ৫৬৫ ও হাই কোর্টে ৪ লাখ ৭৬ হাজার ৭৫০টি মামলা বিচারাধীন ছিল। বিচারকস্বল্পতাসহ নানা কারণে গত বছর উচ্চ আদালতে ৪৩ হাজার ৭৭৯ মামলার জট বেড়েছে। এদিকে নিম্ন আদালতে অর্থাৎ জেলা ও দায়রা জজসহ সব ধরনের ট্রাইব্যুনালে গত বছর ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিচারাধীন মামলা ছিল ৩০ লাখ ৩২ হাজার ৬৫৬টি। এর মধ্যে দেওয়ানি মামলা ১৩ লাখ ২১ হাজার ৩৮ ও ফৌজদারি ১৭ লাখ ১১ হাজার ৬১৮টি। পরিসংখ্যান অনুযায়ী নিম্ন আদালতে গত বছরই মামলাজট বেড়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার ৪৭১টি। মামলাজট দেশবাসীর ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার খর্ব করছে। বিলম্বিত বিচার বিচারহীনতার নামান্তর বলে বিবেচিত। সে অবস্থার শিকার হচ্ছে দেশের মানুষ। সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা, রমনার বটমূলের বোমা হামলা, এমনকি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মতো শীর্ষ গুরুত্বের মামলাগুলোও ঝুলে আছে বছরের পর বছর। বিচারকস্বল্পতা ও আইনজীবীদের একাংশের মধ্যে প্রতিশ্রুতিবদ্ধতার অভাব থাকায় মামলাজট নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। এ সংকট মোকাবিলায় সরকার ও দেশের বিচারব্যবস্থাকে এখনই সক্রিয় হতে হবে। সংকটের অবসানে নিতে হবে কার্যকর ব্যবস্থা।


আপনার মন্তব্য