Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১০ জুন, ২০১৬ ২৩:১১
বদলে যাচ্ছে চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড
আলাউদ্দীন মাজিদ
বদলে যাচ্ছে চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড নয়, নতুন নাম হচ্ছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সার্টিফিকেশন বোর্ড। গ্রেডিং পদ্ধতিও চালু হবে। থাকছে আরও কিছু নতুন নিয়ম-কানুন। শিগগিরই এই নতুনত্ব আসছে সেন্সর বোর্ডে। এমনটি জানা গেল তথ্য মন্ত্রণালয় ও সেন্সর বোর্ড সূত্রে।

চলচ্চিত্রকারদের দীর্ঘদিনের দাবি বিশ্বের কোথাও ফিল্ম সেন্সর বোর্ড বলে কোনো শব্দ নেই। আছে ফিল্ম সার্টিফিকেশন বোর্ড। চলচ্চিত্রকার মাসুদ পারভেজের কথায় সেন্সর শব্দটি চলচ্চিত্রকারদের জন্য অসম্মানজনক। এর অর্থ হচ্ছে অবাঞ্ছিত বিষয় নিয়ন্ত্রণ করা। একজন চলচ্চিত্রকার হচ্ছেন সম্মানী ব্যক্তি। তিনি অবশ্যই নিয়ম-কানুন মেনে কাজ করেন। তার কাজকে নিয়ন্ত্রণ কেন করা হবে। বরং নির্দেশনা দেওয়া যেতে পারে। চলচ্চিত্রকারদের এমন অনেক দাবির যৌক্তিকতা আমলে এনে বোর্ডের নাম ও নীতিমালা পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ জন্য একটি খসড়াও তৈরি করা হয়েছে। সেন্সর বোর্ডের সচিব মুন্সী জালালউদ্দীন জানান সংস্থার নাম, নীতিমালা, চলচ্চিত্র নির্মাণ, প্রদর্শন, সনদ প্রাপ্তিসহ অনেক ক্ষেত্রে পরিবর্তন আসছে। তিনি বলেন নতুন নীতিমালা অনুযায়ী বেশ কিছু ক্ষেত্রে কড়াকড়িও আরোপ করা হচ্ছে। যেমন ট্রেইলারের জন্য অনুমোদন লাগবে। অনুমোদন ছাড়া সিনেমা হল, ইউটিউবসহ কোথাও ট্রেইলার প্রদর্শন করা যাবে না। বর্তমান নীতিমালায় চলচ্চিত্রের পোস্টার, ডায়াগ্রাম, স্কেচ, হ্যান্ডবিল প্রিন্ট-ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রচারের জন্য বোর্ডের অনুমোদনের বাধ্যবাধকতা ও শাস্তির বিধান রয়েছে। এ বিষয়ে আরও কড়াকড়ি আসছে। একই সঙ্গে চালু হচ্ছে গ্রেডিং সিস্টেম। এতে চলচ্চিত্র অনুযায়ী দর্শকের বয়স ভাগ করে দেওয়া হবে। তাছাড়া সিনেমার নামে বড় নাটককে সনদ দেওয়া হবে না। সার্টিফিকেশন বোর্ড কমিটিতে নতুন সদস্য অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে। সেন্সর বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, খসড়া নীতিমালাটি শিগগিরই তথ্য মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হবে। মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পাওয়ার পর কাজ শুরু করবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সার্টিফিকেশন বোর্ড।




up-arrow