Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১৫ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৫
আলোচনায় ঈদের যত ছবি
আলাউদ্দীন মাজিদ
আলোচনায় ঈদের যত ছবি
‘সম্রাট’-এ শাকিব, অপু ও ইন্দ্রনীল

ঈদে কয়টি ছবি মুক্তি পাবে? তালিকায় থাকছে কোন কোন ছবি? এ নিয়ে একদিকে জল্পনা-কল্পনা অন্যদিকে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান তাদের মুক্তি প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে। যদিও এখনো সেন্সর বোর্ডে কোনো ছবি জমা কিংবা প্রযোজক সমিতিতে কোনো আবেদন করা হয়নি।

সেন্সর বোর্ডের একটি সূত্র বলছে ঈদের ছবি সেন্সর করার জন্য এখনো যথেষ্ট সময় হাতে আছে। আশা করা যাচ্ছে রমজানের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে ছবি জমা পড়া শুরু হবে। প্রযোজক সমিতির কর্মকর্তা সৌমেন্দ্র বলেন, অন্যান্যবার রমজান শুরুর আগেই ঈদের ছবি মুক্তির জন্য আবেদন জমা পড়া শুরু হয়। এবার এখন পর্যন্ত কেউ আবেদন করেনি। তবে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ রয়েছে।

ঈদে যেসব ছবি মুক্তি পেতে পারে সেই সম্ভাব্য তালিকায় প্রথমেই রয়েছে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ৩টি ছবি। এগুলো হলো— শাকিব খান-শ্রাবন্তী অভিনীত ‘শিকারী’। জিৎ-নুসরাত ফারিয়ার ‘বাদশা’ এবং আরিফিন শুভ-জলি জুটির ‘নিয়তি’। নিয়তি ছবিটি ইতিমধ্যে কলকাতায় মুক্তি পেয়ে ভালো ব্যবসা করেছে। জাজের কর্ণধার আবদুল আজিজ বলেন ঈদে ‘নিয়তি’ মুক্তির ব্যাপারে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেইনি। তবে ‘বাদশা’ ও ‘শিকারী’ মুক্তি পাওয়া প্রায় নিশ্চিত। সেভাবেই আমার প্রস্তুতি চলছে। আবদুল আজিজ বলেন, এখন পর্যন্ত ‘শিকারী’র মুক্তি হান্ড্রেড পার্সেন্ট কনফার্ম বলতে পারেন। এরপর রয়েছে মুহাম্মদ মুস্তাফা কামাল রাজের ‘সম্রাট’ ছবিটি। এই ছবিতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, অপু বিশ্বাস, কলকাতার ইন্দ্রনীল। নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, ইতিমধ্যে তারা সিনেমা হল বুকিং দিতে শুরু করেছে। সিনেমা হল সংখ্যাসহ ব্যবসার সবদিক অনুকূল থাকলে ছবিটি ঈদে বড় পর্দায় আসবে। শাকিব খানের আরেক ছবি ‘মেন্টাল’ও ঈদে মুক্তির প্রস্তুতিতে শামিল হয়েছে। শামিম আহমেদ রনি পরিচালিত শাকিব-তিশা জুটির এই ছবিটি শেষ পর্যন্ত ঈদের ছবির মুক্তির তালিকায় টিকে থাকবে কিনা তা দেখার জন্য আরও এক সপ্তাহ অপেক্ষা করতে বলছে সিনেমা হল মালিকরা। শাকিব-অপু জুটির অন্য দুটি ছবি মুক্তির জন্য সংশ্লিষ্ট নির্মাতারা জোর চেষ্টা চালালেও অপুকে দীর্ঘদিন ধরে খুঁজে না পাওয়ায় ঈদের ছবি দৌড় থেকে শেষ পর্যন্ত ছিটকে পড়ছে বুলবুল বিশ্বাসের ‘রাজনীতি’ ও মো. মান্নানের ‘পাঙ্কু জামাই’। এ দুই ছবির নির্মাতা বলছেন এ সপ্তাহেও যদি অপুকে পাওয়া যায় তাহলে ঈদে ছবি দুটি মুক্তি দেওয়া সম্ভব হবে।

এবারের ঈদে সবচেয়ে আলোচনা হচ্ছে কলকাতার ছবি মুক্তি পাওয়া নিয়ে। ঈদে ঢাকা ও কলকাতায় একসঙ্গে মুক্তির প্রক্রিয়া চলছে কলকাতার নতুন ছবি ‘প্রেমের গোলমাল’। দেব ও অংকুশ অভিনীত এই ছবিটি আমদানি করছে আরাধনা ফিল্মসের কর্ণধার কার্তিক দে। আর ছবিটি বাংলাদেশে রপ্তানি করতে যাচ্ছে কলকাতার ভেঙ্কটেশ ফিল্মস। স্থানীয় চলচ্চিত্রকাররা বিষয়টিকে নেতিবাচক হিসেবে দেখছে। তাদের কথায় ঈদে বিদেশি বিগ বাজেটের ছবি মুক্তি পাওয়া মানে স্থানীয় ছবি হুমকির মুখে পড়া। চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি সুদীপ্ত কুমার দাশ বলেন, ঈদ হচ্ছে চলচ্চিত্র ব্যবসার প্রধান মৌসুম। বুকিং এজেন্ট ও প্রদর্শকরা নির্মাতাকে অগ্রিম টাকা দিয়ে রাখে। এ সময় যদি বাইরের বিগ বাজেটের ছবি আসে তাহলে স্থানীয় ছবি লোকসানের কবলে পড়ার আশঙ্কা থাকে। ব্যবসার এই প্রধান সময়ে স্থানীয় ছবি ভালো ব্যবসা করলে সংশ্লিষ্ট প্রযোজক উৎসাহিত হয়ে নির্মাণ অব্যাহত রাখবে। এতে স্থানীয় ছবি বাড়বে। আর লোকসান হলে আগ্রহ হারাবে নির্মাতা। ছবি নির্মাণের সংখ্যা কমবে। এটি সার্বিকভাবে দেশীয় ছবির ব্যবসার জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তাই দুই ঈদ ও পূজা ছাড়া অন্যসময়ে নিয়ম কানুন মেনে কলকাতার ছবি এখানে মুক্তি দিলে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়। চলচ্চিত্রকাররা বলছে এবার যদি কলকাতার ‘প্রেমের গোলমাল’, শুভর ‘নিয়তি’ও জিৎ অভিনীত যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘বাদশা’ মুক্তি না পায় তাহলে একমাত্র শাকিব খান ছাড়া আর কারও ছবি মুক্তি পাচ্ছে না। দর্শক তিনটি ছবিতে শাকিবের তিন লুক দেখতে পাবে। যেমন ‘শিকারী’ ছবিতে এই শিল্পী অভিনয় করেছেন একজন কিলিং মিশনের প্রধান হিসেবে। ‘সম্রাট’ ছবিতে শাকিবকে দেখা যাবে গডফাদারের চরিত্রে। আর ‘মেন্টাল’ ছবিতে প্রেমিক যুবক। মানে ঈদে দর্শক শাকিবের অভিনয়ে ভ্যারিয়েশন মাপার সুযোগ খুঁজে পাবে। সব মিলিয়ে এবারের ঈদ হয়ে উঠবে শাকিবময়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow