Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : শনিবার, ২৫ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৪ জুন, ২০১৬ ২৩:৫৩
দুই বাংলার জয়া-সাবা
আলাউদ্দীন মাজিদ
দুই বাংলার জয়া-সাবা
জয়া আহসান, সোহানা সাবা

আগে জয়া আহসান। তারপর সোহানা সাবা। তারা জয় করেছিলেন এপার বাংলার চলচ্চিত্র। এবার নিজেদের কৃতিত্ব ছড়িয়ে দিলেন ওপার বাংলায়। দুজনই এখন দুই বাংলার জনপ্রিয় নায়িকা। দুজনকে নিয়েই এখন অবিরাম স্বপ্নের জাল বুনে চলছেন দুই বাংলার চলচ্চিত্রকার আর দর্শক।

২০১৫ সালের দুর্গাপূজায় কলকাতায় মুক্তি পায় সৃজিত মুখার্জীর পরিচালনায় জয়া অভিনীত ‘রাজকাহিনী’। এরপর তো জয়াকে নিয়ে সেখানে রীতিমতো তোলপাড়। দাদাদের শহরে বেশ নাম কুড়ালেন জয়া। তার জনপ্রিয়তাও বেড়ে চলছে সমানতালে। মুক্তি পেতে চলেছে জয়ার প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ‘ভালোবাসার শহর : দ্য সিটি অব লাভ’। ঈদে এটি ইউটিউবে মুক্তি পাবে। এখন সেখানে জয়া অভিনয় করছেন ‘ঈগলের চোখ’ নামের চলচ্চিত্রে।

কলকাতায় বড় পর্দার পাশাপাশি ছোট পর্দার কাজের জন্যও খবরের শিরোনাম হয়েছেন জয়া। ভারতের সাবেক ক্রিকেটার সৌরভ গাঙ্গুলীর সঞ্চালনায় জি বাংলা চ্যানেলের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘দাদাগিরি’তে অংশ নিয়েছেন তিনি। গত সপ্তাহে  জয়ার পর্বটি প্রচার হয়। ‘আমি জয় চ্যাটার্জি’ শিরোনামের চলচ্চিত্রের অভিনয় নিয়েও কলকাতায় এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন জয়া। এটি পরিচালনা করছেন মনোজ মিশিগান। চলচ্চিত্রটিতে জয়ার বিপরীতে নাম ভূমিকায় আছেন আবির চ্যাটার্জি। আর এখানে কিছুদিন আগে সাইফুল ইসলাম মান্নুর পুত্র ও আকরাম খানের খাঁচা চলচ্চিত্রের কাজ সম্পন্ন করেছেন তিনি। একই সঙ্গে নুরুল আলম আতিকের নির্মিতব্য নতুন সিনেমা ‘পেয়ারার সুবাস’ ছবিতে পেয়ারা চরিত্র রূপায়ণ করছেন জয়া আহসান। এ সিনেমার গল্প প্রসঙ্গে জয়া জানিয়েছেন, পেয়ারার সুবাস ছবিটি বাঙালিদের গল্প। আমাদের এই অঞ্চলেরই গল্প। এই গল্পে এক ধরনের আদিমতা আছে। এর চেয়ে বেশি কিছু বলা পরিচালকের বারণ রয়েছে। এ ছাড়া আতিকের ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’ শিরোনামের আরেকটি ছবিতেও কাজ করছেন জয়া।

জয়ার কলকাতা জয় শেষ না হতেই সেখানে তোলপাড়ের বিষয় হয়ে উঠেছেন সোহানা সাবা। জয়ার সঙ্গে তাল মিলিয়ে দুই বাংলার ক্যারিয়ারের খুব চমৎকার সময় পার করছেন সাবা। গত বছরের শেষ দিকে এপারে মুক্তি পাওয়া ‘বৃহন্নলা’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হন সাবা। মুক্তির পর ছবিটি দেশের বাইরে বিভিন্ন উৎসবে অংশ নিয়ে সম্মান বয়ে আনে। ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় শিল্পী সাবা অর্জন করেন কিছু পুরস্কার। সর্বশেষ ভারতের গোলাপি শহর নামে পরিচিত জয়পুরে সপ্তম জয়পুর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘বৃহন্নলা’ ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার অর্জন করেন সোহানা সাবা। এর আগে ‘আয়না’, ‘খেলাঘর’, ‘চন্দ্রগ্রহণ’, ‘প্রিয়তমেষু’সহ চারটি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। সামনে পরিচালক মুরাদ পারভেজের ‘দৌড়’ ছবিতে দেখা যাবে সাবাকে। একই পরিচালকের আরেকটি ছবিতে অভিনয়ের ব্যাপারেও সাবার কথাবার্তা চলছে। এদিকে টলিউডে পা দিয়েই কলকাতার দর্শকদের মন জয় করেছেন তিনি। সম্প্রতি সেখানে মুক্তি পেয়েছে অয়ন চক্রবর্তীর ছবি ‘ষড়রিপু’। কলকাতার জনপ্রিয় পত্রিকা আনন্দ বাজার লিখেছে, ‘কলকাতাইয়া জীবন থেকে ‘প্রাক্তন’-এর আমেজ মুছতে না মুছতেই উইকএন্ডে আরও এক প্রশংসিত বাংলা ছবির জন্য টিকিট কাটার লাইন। আর এই ছবিতে নতুন মুখ হিসেবে প্রথমেই নজর কেড়েছেন যিনি তিনি অবশ্যই ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী সোহানা সাবা। চেনেন কি এই সাবাকে? ষড়রিপুতে রাকা চৌধুরীর চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করেছেন সোহানা সাবা। বাংলাদেশের এই অভিনেত্রীকে এই ছবিতে আবিষ্কার করেছেন পরিচালক অয়ন। ছবিতে রজতাভ দত্তর বিপরীতে তার দুর্দান্ত অভিনয় দিয়ে দর্শক-চলচ্চিত্র বোদ্ধাদের ভালোবাসা আদায় করে নিয়েছেন ‘চন্দ্রগ্রহণ’ তারকা। কলকাতার দৈনিকগুলোর মুভি রিভিউতে উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করা হয়েছে সাবার অভিনয়ের। সব মিলিয়ে সাবার টালিউড যাত্রা শুরুতেই বাজিমাত। তাই বলা যায় বর্তমান সময়ে দুই বাংলার বড় পর্দা জয় করে চলা দুই নায়িকা জয়া আহসান আর সোহানা সাবা এখন দুই দেশেই জনপ্রিয়তার তকমায় ভাসছেন।

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow