Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৫ জুলাই, ২০১৬ ২২:১৩
এই চাঁদনী সেই চাঁদনী...
আলাউদ্দীন মাজিদ
এই চাঁদনী সেই চাঁদনী...
এই সময়ের শাবনাজ-নাঈম

কথা ছিল আবার ‘চাঁদনী’ বড় পর্দায় আসবে। গত বছরের অক্টোবরেই নতুন করে ‘চাঁদনী’র নির্মাণ শুরু হওয়ার কথাও ছিল। না, শেষ পর্যন্ত নতুন চাঁদনীর বড় পর্দায় আসা অনিশ্চিত হয়ে গেল। খোদ চাঁদনী মানে শাবনাজ জানিয়েছেন ‘ছবিটি পরিচালনা করার কথা ছিল নাঈমের। তিনি ব্যবসা নিয়ে অনেক ব্যস্ত হয়ে পড়ায় আপাতত চাঁদনী নির্মাণ হচ্ছে না। ছবিটির জন্য নতুন মুখের সন্ধানও করা হয়েছিল। অনলাইনে প্রচুর আবেদনও জমা পড়েছিল। শাবনাজ বলেন আসলে যেমন মুখ দরকার ছিল তেমনটা পাওয়া যায়নি। তবে অপ্রত্যাশিত সাড়া মিলেছে। আগামীতে সময় সুযোগ করে ‘চাঁদনী’কে বড় পর্দায় আনার প্রত্যয় আমাদের রয়েছে। ১৯৯১ সালে প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার এহতেশাম নির্মাণ করেন ‘চাঁদনী’ ছবিটি। এই ছবিতে ‘চাঁদনী’ চরিত্রে তিনি উপহার দেন নতুন মুখ শাবনাজকে। তার বিপরীতে আনেন আরেক নতুন মুখ নাঈমকে। কিশোর প্রেমের গল্পের এই ছবিতে এদেশের দর্শক প্রথমবারের মতো দুই কিশোর-কিশোরী অভিনয় শিল্পীকে পেয়ে রীতিমতো নড়েচড়ে বসেন। বলা যায় অল্প বয়সের শিল্পী নিয়ে ঢাকায় প্রথমবার ছবি নির্মাণ হলো। নির্মাণ, অভিনয় আর গল্পের কারণে ছবিটি দর্শক লুফে নেয়। বিশেষ করে কিশোর বয়সের দুই শিল্পীর অভিনয় দেখতে দর্শক দলে দলে সিনেমা হলের দিকে ছুটতে থাকে। ঢাকার ছবিতে অল্প বয়সের নায়ক-নায়িকা নিয়ে কাজ করার ধারা চালু হয় এই ছবি দিয়ে। তারপর শাবনাজ-নাঈম জুটি আরও ২০টি ছবিতে অভিনয় করেন। একসঙ্গে অভিনয় করতে গিয়ে তাদের মধ্যে মন দেওয়া-নেওয়া শুরু হয়। ১৯৯৬ সালে বিয়ে করেন তারা। এরপর ধীরে ধীরে বড় পর্দা থেকে দূরে সরেন। হয়ে পড়েন পুরোপুরি সংসারী। এখন দুই সন্তানের জনক-জননী তারা। বিশ বছরের সংসার জীবনে কখনো ঝড়ের কবলে পড়তে হয়নি তাদের। বলা হয় সফল দম্পতি তারা। শাবনাজ হয়ে গেলেন রীতিমতো গৃহবধূ আর নাঈম পুরোদস্তুর ব্যবসায়ী। অনেক সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও অসময়ে বড় পর্দা ছাড়লেন। নির্মাতা আর দর্শকের অনুরোধ সত্ত্বেও আর ফিরলেন না। রুপালি জগত ছাড়লেও মনটা মাঝে মাঝে অ্যাকশান কার্ট আর ক্যামেরাকে খুঁজে ফিরে। তাই গত বছরের জুন মাসে সিদ্ধান্ত নিলেন তাদের অভিষেক হওয়া ছবি ‘চাঁদনী’ রিমেক করবেন। এতে তাদের করা চরিত্রে নতুন মুখ থাকবে। নাঈম ছবিটি পরিচালনার পাশাপাশি বিশেষ একটি চরিত্রে অভিনয় করবেন। আর শাবনাজ অভিনয় ছাড়া বাকি সব তদারকি করবেন। সেই হিসাবে প্রস্তুতিও ভালো চলছিল। হঠাৎ আবার মন পরিবর্তন। আপাতত ‘চাঁদনী’ নির্মাণ স্থগিত। নাঈম বললেন ছবির ব্যবসা অনুকূলে নেই। আর শাবনাজের কথায় নাঈম ব্যবসা নিয়ে খুবই ব্যস্ত। তবে ‘চাঁদনী’ নির্মাণ একদিন হবেই। অনেক দিন পর এই জুটি গত ঈদে একটি টিভি চ্যানেলের ঈদ অনুষ্ঠানে এসে বললেন এখন ধর্মকর্ম নিয়েই বেশি সময় পাড় হচ্ছে তাদের। শাবনাজ রীতিমতো হিজাব পরা আর নাঈমকে দেখা গেল পাঞ্জাবি-পায়জামা পরে অনুষ্ঠানে হাজির হতে। তাদের কথায় ধর্মকর্ম, ব্যবসা-বাণিজ্য আর সংসার নিয়ে ব্যস্ত তারা। একই সঙ্গে ব্যবসা বাণিজ্য আর দুই কন্যাকে নিয়ে কেটে যাচ্ছে তাদের সময়। চলচ্চিত্রে ফেরা নিয়ে জোর দিয়ে কিছু বলতে চাননি তারা। তাহলে ধরে নেওয়া যায় দর্শক তাদের চাঁদনী কন্যাকে আর কখনো বড় পর্দায় দেখতে পাবেন না।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow