Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:২৫
পাওলির দেবী
শোবিজ ডেস্ক
পাওলির দেবী

১৯১৭ সালে যখন শরত্চন্দ্র চট্টোপাধ্যায় লিখেছিলেন ‘দেবদাস’ তখন সময়টা যেমন আলাদা ছিল, তেমনি সমাজের নিয়মনীতিও ছিল একেবারে আলাদা। আজকের সমাজের সঙ্গে তুলনা টানলে সেটা ক্রমশ প্রকট হয়! সে সময় কোনো একজন পুরুষ যদি প্রেমে পড়ে জীবন নষ্ট করতেন, তাহলে সমাজ তার জীবনটাকে গুছিয়ে নিতে আরেকটা সুযোগ দিত।

১০০ বছর কেটে গেল। কিন্তু এই সামাজিক ধারণার কোনো বদল ঘটল না। সমাজ এখনো চালিত হয় পুরুষ দ্বারা, রানী ভিক্টোরিয়ার আমলে যে নিয়মনীতি ছিল, তার দ্বারা! নতুন বাংলা ছবি ‘দেবী’ চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখায় যে, এই পুরুষ নিয়ন্ত্রণ আর ভিক্টোরিয়ান যুগের নিয়মনীতি নিয়েও প্রশ্ন তোলা যায়। এই ছবি প্রশ্ন ছুড়ে দেয় একজন নারী যদি ঠিক এভাবেই ভালোবাসার জন্য তার জীবন নষ্ট করে ফেলে, তাহলে সমাজ তাকে ঠিক কোন নজরে দেখবে? তাতে সেই নারীর কী অনুভূতি হবে? আর যে পুরুষদের জড়িয়ে তাকে নিয়ে এই কথা হবে, তারাই বা কীভাবে রিঅ্যাক্ট করবে এই ঘটনায়? ইনফ্যাক্ট এই ছবি শুটিং করে নায়িকা পাওলি বলেছিলেন, ‘দেখতে চাই, সমাজের রক্ষণশীল মানুষদের কেমন লাগে এই ছবি। ‘অনেকেই আঁচ করতে পারছেন নিশ্চয়ই শরত্চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের লেখা কোনো গল্প এই ছবির ভিত হতে পারে।

up-arrow