Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৪
ঢাকার রসমালাই নিয়ে বাড়ি যাব
টালিগঞ্জের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শুভশ্রী গতকাল ঢাকায় এসেছেন। ‘প্রেম কি বুঝিনি’ ছবির প্রমোশন উপলক্ষে তার এই আগমন। জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত যৌথ আয়োজনের এই ছবিটি শিগগিরই মুক্তি পাবে। এই ছবি ও অন্যান্য প্রসঙ্গে শুভশ্রীর ইন্টারভিউ নিয়েছেন— আলাউদ্দীন মাজিদ
ঢাকার রসমালাই নিয়ে বাড়ি যাব

ঢাকায় আবার এলেন, আপনাকে শুভেচ্ছা, কেমন লাগছে?

অজস্র ধন্যবাদ। খুব ভালো লাগছে। ভালো লাগাটাই স্বাভাবিক। নিজের ঘরে এসেছি। আমি এই বাংলাটাকে কোনো দিন পর করে দেখিনি। যতবার এই দেশে এসেছি মনে হয়েছে নিজের ঘরে এসেছি। এই দেশের মানুষ, প্রকৃতি সবকিছু আমার আপন।

আপন ঘর মানে?

ওহ! আপন ঘর মানে আমি যেহেতু বাঙালি তাই দুই বাংলাই আমার ঘর। দুই বাংলার আলো-বাতাস আমাকে কাছে টানে। তাই বার বার বাংলার মাটির গন্ধ নিয়ে প্রাণ জুড়াতে চাই। কাজ ছাড়াও মাঝে-মধ্যে এই ঘরে আসতে ইচ্ছা করে। নানা ব্যস্ততার কারণে সময় হয়ে ওঠে না। কিন্তু আমার মনটা পড়ে থাকে এই ঘরের মাঝে।

দুই বাংলার মাঝখানে তো কাঁটাতারের বেড়া আছে।

মনের টান ষোলআনা খাঁটি থাকলে কাঁটাতার কাউকে আটকাতে পারে না। বহুদিন ধরে দুই বাংলার সাংস্কৃতিক আদান-প্রদান তাই প্রমাণ করেছে। উভয় বাংলার মানুষ একে অপরের কাছে ছুটে যাচ্ছে। আমি শুভশ্রী বার বার এখানে আসছি। এই               বাংলার ফেরদৌস, শাকিব খানসহ অনেকে       ওখানে যাচ্ছে। কাঁটাতার কি কাউকে বাধা           দিয়ে আটকাতে পারছে? ভাষা আর সংস্কৃতির       কাছে কাঁটাতার অনেক আগেই হেরে গেছে।

ঢাকার ছবি কেমন লাগে?

ঢাকার ছবি আসলে দেখার সুযোগ হয় না। শুনেছি এখানকার আর্ট মুভি খুব ভালো হয়। আন্তর্জাতিক উৎসবে সম্মানিত হয়। বিদেশি নানা ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে অংশ নেয়। একই সঙ্গে বাণিজ্যিক ঘরানার অনেক ভালো ছবি এখানে হয়েছে। ইচ্ছা আছে এখানকার সব ধরনের ছবিতে অভিনয় করার।

‘প্রেম কি বুঝিনি’ নিয়ে কী বলবেন?    

এটি একটি প্রেম ও পারিবারিক গল্পের ছবি। এই দুটি বিষয় নিয়ে ছবিটি নির্মাণ হলেও এতে গভীর একটি মেসেজ আছে। বিনোদন ও বাণীর দিক দিয়ে চমৎকার উপভোগ্য ছবি হয়েছে এটি। আমার বিশ্বাস, ছবিটি দর্শকের ভালো লাগবে। আমার চরিত্রের নাম পারমিতা যে কিনা ছোটবেলা থেকে রাজকে ভালোবাসে। একসময় রাজ লন্ডন চলে যায়। আমিও সেখানে পড়তে যাই। শুরু হয় নতুন সম্পর্ক। চমৎকারভাবে এগোয় গল্প।

এ পর্যন্ত শুধু দুটি যৌথ আয়োজনের ছবিতে কাজ করলেন—

স্থানীয় ও যৌথ প্রযোজনার মধ্যে কোনো পার্থক্য দেখি না। যৌথ মানে উভয়ে মিলে-মিশে কাজ শেয়ার করা। এতে মেলবন্ধন দৃঢ় হয়। দুইয়ে মিলে এক হওয়া মানেই যৌথ আয়োজন। আমার ভালো লাগে।

ঢাকার স্থানীয় ছবিতে কাজ করবেন?

সেই ডাকের অপেক্ষায় আছি। নিজের ঘরে কমপক্ষে দু-চারটি ছবিতে কাজ করতে না পারলে নিজেকে কীভাবে বাংলাদেশের মেয়ে বলে ভাবব বলুন। হা... হা... হা...।

শাকিব খানের সঙ্গে অভিনয় করতে যাচ্ছেন?

হ্যাঁ, গল্প শুনেছি। শাকিবের সঙ্গে কথাও হয়েছে। এ দেশের শীর্ষ নায়কের সঙ্গে অভিনয় করতে যাচ্ছি ভেবে খুব এক্সাইটেড আমি।

বাংলাদেশের কোন জিনিস খুব পছন্দের?

এক কথায় মিষ্টি খুব পছন্দ আমার। এখানকার রসমালাই খুবই প্রিয়। আজও খাব। আর বাড়ি যাওয়ার সময় নিয়ে যাব। ইলিশ মাছ আমার পছন্দ নয়। এতে কাঁটা বেশি। এ দেশের মিষ্টি এখানকার মানুষের মতোই বড় কাছে টানে আমাকে, হা...হা...হা...।

up-arrow