Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৩১ জানুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৭
ঘড়ি ধরে ৫ মিনিট
খলচরিত্র অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং
শতাব্দী ওয়াদুদ
পান্থ আফজাল
খলচরিত্র অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং

শতাব্দী ওয়াদুদ। চলচ্চিত্রে অভিনয় করে জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন। মঞ্চ, টেলিভিশন, বড় পর্দা সব অঙ্গনেই তার সরব পদচারণা।

এখনকার ব্যস্ততা কেমন?

দীপঙ্কর দীপনের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের ডাবিং করছি। এখানে আমি পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করেছি। ছবিটিতে দর্শক অন্য এক শতাব্দীকে খুঁজে পাবেন। তানিম রহমান অংশুর ‘আদি’ চলচ্চিত্র মুক্তির অপেক্ষায়। সাখাওয়াত হোসেনের ‘আসমানী’, তারেক সিকদারের ‘দাগ’ করছি। পাশাপাশি মঞ্চ ও টেলিভিশনের বেশ কিছু কাজ আছে।

 

কখনো খলচরিত্রে আবার কখনো ইতিবাচক চরিত্রে ...

অনেক ধরনের চরিত্রে অভিনয় করার অভিজ্ঞতা আমার রয়েছে। মঞ্চ, টেলিভিশন কিংবা চলচ্চিত্রে চরিত্রের প্রয়োজনে অভিনয়ে বৈচিত্র্য আনতে চাই। আমার কাছে খলচরিত্র অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং। খলচরিত্রে নিজেকে ভাঙাগড়ার সুযোগ বেশি থাকে। এমন চরিত্রে অভিনয় করে ‘গেরিলা’ ছবিটির জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছি। তাই খলচরিত্রে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি।

 

চলচ্চিত্রে দুই ধারার মধ্যে পার্থক্য...

দেখুন, অভিনয়ের ক্ষেত্রে কোনো ধারা নেই। সব চলচ্চিত্রই আমার কাছে চলচ্চিত্র। বাণিজ্যিক ও বিকল্প ধারা বলতে তেমন কিছুই নেই। উৎসব কেন্দ্রিক আর বাণিজ্যিক, সবই দর্শকের জন্য নির্মাণ করা হয়। তাই ধারায় কখনো বিশ্বাসী নই আমি।

 

কোন মাধ্যমে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন?

অভিনয় ছাড়া আমার অন্য কোনো কাজ নেই। অভিনয়ের ক্ষুধা আমার সব সময়। আসলে আত্মার তাগিদেই নিয়মিত মঞ্চ ও টেলিভিশনে অভিনয় করি। চলচ্চিত্রে কাজ আমাকে বাঁচিয়ে রাখবে দর্শকদের মাঝে। সেই প্রয়াস থেকেই চলচ্চিত্রে আমি নিয়মিত অভিনয় করতে চাই। সবচেয়ে বড় কথা হলো চলচ্চিত্র হচ্ছে একটি দেশের প্রধান গণমাধ্যম। তাই চলচ্চিত্রও আমার মনকে বড় টানে।

 

অনেকে বলে আপনার অভিনয় হুমায়ুন ফরীদির অনুপ্র্রাণিত?

শুধু আমি কেন, আমরা সবাই তার অভিনয়ে অনুপ্রাণিত হয়েছি। এই প্রজন্মের এমন কোনো অভিনয় শিল্পী পাবেন না যে হুমায়ুন ফরীদির অভিনয় দ্বারা অনুপ্রাণিত হন নাই। এমন শিল্পী হাজার বছরে একবার জন্মে কিনা সন্দেহ আছে। তার আদর্শ আসলেই সবার জন্য অনুকরণীয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow