Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ মার্চ, ২০১৭ ২১:৫৪
চলচ্চিত্র শিল্পীদের ভালো মন্দের পিকনিক
আলাউদ্দীন মাজিদ
চলচ্চিত্র শিল্পীদের ভালো মন্দের পিকনিক

ভালো আর মন্দের মিশেলে চার বছর পর অনুষ্ঠিত হলো চলচ্চিত্র শিল্প সমিতির পিকনিক। আশুলিয়ার বিরুলিয়া বেড়িবাঁধের কাছে অবস্থিত প্রিয়াংকা শুটিং হাউসে রবিবার হয়ে গেল প্রতীক্ষিত এই আয়োজন।

তারকাদের এই আয়োজনে তারকাদেরই উপস্থিতিতে ছিল ভাটা। আয়োজনের শুরুতেই বাধে গলদ। সকাল ৭টার জায়গায় এফডিসি থেকে গাড়ি ছাড়ে সকাল প্রায় সাড়ে ১০টায়। এ সময় এফডিসিতে উপস্থিতিদের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দেয়। সবার কথায় চার বছর পর  আয়োজিত বনভোজন একদিকে মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির দ্বারা অন্যদিকে অব্যবস্থাপনায় ভরা। প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার ছটকু আহমেদ গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে করতে ক্লান্ত হয়ে শেষ পর্যন্ত ৯টার দিকে ভগ্নি তানিয়াকে নিয়ে নিজ উদ্যোগে রওয়ানা দেন। সমিতির বিদায়ী সহসভাপতি এবং আয়োজনের অন্যতম কর্ণধার ওমর সানি ১০টার দিকে জানান, একটি প্রতিষ্ঠান থেকে স্পন্সর হিসেবে গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই প্রতিষ্ঠানের স্টাফদের অফিসে পৌঁছে দিয়ে গাড়ি এফডিসিতে আসবে। তাই বিলম্ব হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত চারটি গাড়ি আসলেও অতিথির তুলনায় গাড়ি কম হওয়ায় প্রায় গাদাগাদি করে অনেকে বাসে ওঠেন আর অনেকে যেতেই পারেননি। বেলা প্রায় ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠানস্থলে আয়োজকদের দেখা মেলেনি। ওমর সানি আসেন প্রায় সাড়ে ১২টার দিকে। এমন অব্যবস্থাপনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে ১২টার আগেই অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন ইলিয়াস কাঞ্চন, বাপ্পারাজ, সম্রাটসহ বেশ কজন তারকা। বনভোজনে আগত অন্য তারকারা হলেন— জাভেদ,  অরুণা বিশ্বাস, সিমলা, রিনা খান, আমিন খান, রুবেল, ফেরদৌস, সাইমন, জায়েদ খান, বুবলী, মিষ্টি জান্নাত, অমৃতা, তানিয়া রহমান, শিশির খান প্রমুখ। মঞ্চে টানানো ব্যানারে শিল্পীর পরিবর্তে লিখা ছিল ‘শিল্প সমিতির বনভোজন’। সমিতির বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক অমিত হাসান রাগত স্বরে বলেন, ‘ওটা কিছু নয়, সামান্য ভুল হতেই পারে’।

দুপুর ১টা ৩৫ মিনিটে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন সমিতির সভাপতি শাকিব খান। তিনি এসেই পুরো অনুষ্ঠানস্থল ঘুরে দেখেন। এ সময় অনেক শিল্পী তার কাছে অব্যবস্থাপনার কথা জানালে তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

বেলা ২টার দিকে শুরু হয় ভোজনপর্ব। রান্না বেশ মজাদার হয়েছে বলে জানিয়ে অতিথিরা তৃপ্তির ঢেকুর তোলেন। ৩টার পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক পর্ব। এই পর্বের আকর্ষণ ছিল অভিনেতা আলমগীরের গাওয়া ‘আছেন আমার মোক্তার, আছেন আমার ব্যারিস্টার’ গানটি। অভিনেত্রী মৌসুমী গাইলেন ‘আগুনের দিন শেষ হবে একদিন’। মঞ্চে সমিতির প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক মিশা সওদাগরকে আমন্ত্রণ না জানানোতে অনেক শিল্পী ক্ষোভ প্রকাশ করেন। একই সঙ্গে মঞ্চে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি সোহেল রানা, ফারুকসহ অনেক সিনিয়র অভিনেতা-নির্মাতাকে। খল অভিনেতা আহমেদ শরীফের উপস্থাপনায় হাউজি পর্ব বেশ উপভোগ্য ছিল। বেলা শেষে লটারির পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে শিল্পী সমিতির ভালো মন্দের বনভোজনের যবনিকাপাত ঘটে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow