Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২২ জুন, ২০১৮ ২২:৪৫
শাকিবেই মগ্ন থাকতে চান বুবলী
আলাউদ্দীন মাজিদ
শাকিবেই মগ্ন থাকতে চান বুবলী

এখন ঈদের ছবির নায়িকা মানেই বুবলী। কথাটি দর্শক-মন কাড়া এ নায়িকার। এ ঈদেও তার দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। এ পর্যন্ত তার মুক্তি পাওয়া ছয়টি ছবির নায়কই শাকিব খান। আর বর্তমানে বুবলীর যে ছবি, মানে ‘ক্যাপ্টেন খান’-এর শুটিং চলছে তার নায়কও শাকিব। বুবলীর কথায় ‘আপাতত আমি শাকিবেই মগ্ন থাকতে চাই’।

২০১৩ সাল থেকে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকা শবনম ইয়াসমিন বুবলী ‘বসগিরি’ শিরোনামের চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় আলো ছড়ান। তার সৌভাগ্য, প্রথম ছবিতেই তার নায়ক ছিলেন ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান এবং এখন পর্যন্ত শাকিবের সঙ্গেই জুটি বেঁধে কাজ করছেন তিনি। এ জুটিকে দর্শক পরম মমতায় গ্রহণও করেছেন। ভাগ্যদেবী মনে হয় বুবলীর মাথার ওপর ছায়া হয়েই ছিলেন। শাকিবের সঙ্গে জুটি বাঁধতে গিয়ে তাকে নানা আলোচনা-সমালোচনা এবং মুখরোচক খবরের শিরোনাম হতে হয়েছে। এতে কিন্তু তার ফিল্ম ক্যারিয়ারের যোগফলে লাভের অঙ্কটাই যোগ হয়েছে বেশি। আলোচনা আর মুখরোচক গল্প দ্রুত তার পরিচিতি ও জনপ্রিয়তার পরিধি বাড়িয়ে দিয়েছে। মানে সবকিছুই ছিল তার জন্য শাপে বর। এবারের ঈদেও বুবলীর দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছে এবং দর্শক আগ্রহ নিয়ে তার ছবি দেখতে ছুটে চলেছে। ছবি দুটি হচ্ছে ‘সুপার হিরো’ এবং ‘চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া’। এ দুটি ছবির মধ্যে ‘সুপার হিরো’ ভিন্ন ট্র্যাকে নির্মাণ হওয়ায় ছবিটির প্রতি দর্শক আগ্রহ  প্রবল। এ ছবিতে অ্যাকশন হিরো হিসেবে শাকিবের পাশাপাশি মারকুটে আর প্রেমময় তরুণী হিসেবে দ্বৈতরূপে বড় পর্দায় হাজির হওয়ায় ডাবল লুকের বুবলীকে দেখতে মুখিয়ে ওঠে দর্শক। সিনেমা হল মালিকরা বিষয়টি আঁচ করতে পেরে তাদেরও ছবিটির প্রতি আগ্রহ শতগুণে বেড়ে গিয়েছিল। কিন্তু বিধিবাম, নানা জটিলতায় ছবিটির গতিরোধ হতে বসেছিল। না, শেষ পর্যন্ত সব অশুভ শক্তি হারল আর অ্যাকশন গার্ল বুবলী বিজয় নিশান হাতে বড় পর্দায় এলেন। প্রথমে ১৬০টি সিনেমা হল বুকিং হয়ে গেলেও ছবিটির মুক্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় সিনেমা হল মালিকরা হতাশ হয়ে অন্য ছবি নিতে বাধ্য হলেন। ঈদের মাত্র একদিন আগে ‘সুপার হিরো’ সেন্সর ছাড়ের আলো দেখলে ৮০টি সিনেমা হলে এটি মুক্তি পায়। যমুনা শপিং মলের ব্লক বাস্টার সিনেমাস সূত্রে জানা যায়, ঈদের দিন থেকে প্রচুর দর্শক বুবলীর অন্যরকম রসায়নের ‘সুপার হিরো’ দেখতে এ সিনেমা হলে ভিড় জমাতে থাকে। কিন্তু ছবিটি মুক্তি নিয়ে অনিশ্চয়তার কারণে অন্য ছবি চালানোতে হতাশ হয়ে ফিরে গেছে বুবলীর ভক্তরা। এবারের ঈদের ছবির চিত্র হলো সারা দেশের দর্শক মারকুটে বুবলীকে দেখতে বারে বারে ‘সুপার হিরো’র কাছে ছুটে যাচ্ছে। আর দর্শকের এ আগ্রহের পারদ ঊর্ধ্বে লতিয়ে উঠায় দ্বিতীয় সপ্তাহে ‘সুপার হিরো’ শতাধিক সিনেমা হলে দ্যুতি ছড়াচ্ছে। ঈদের আগে ইউটিউবে মুক্তির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সাড়া ফেলেছে শবনম বুবলী অভিনীত এ চলচ্চিত্রের একটি গান। এক দিনেই ‘সুপার হিরো’ চলচ্চিত্রের ‘বুম বুম’ গানটি সাড়ে ৬ লাখ বারের বেশি ভিউ হয়েছে। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন প্রতীক হাসান ও শাওরীন। ভাগ্যদেবীর আশীর্বাদপুস্ট রুপালি পর্দার ললনা বুবলী এমন সাফল্যে কি বলছেন। এরি মধ্যে কয়েকটি পত্র-পত্রিকায় দেওয়া সাক্ষাৎকারে শুধু ঈদের ছবি নয়, নানা বিষয়ে বেশ আমুদে কথাবার্তা বলেছেন তিনি। অনেক ধূম্রজালকে দূরে ঠেলতেও চেয়েছেন। এবার সেসব কথাই শোনা যাক। প্রথমেই ঈদের ছবির কথা বলতে গিয়ে আবেগাপ্লুত বুবলী বলেন, সৃষ্টিকর্তার অপার করুণায় আনন্দ উৎসবের ঈদে দর্শক আমার ছবি দেখতে উদগ্রীব হয়ে ওঠে। এর চেয়ে আর বেশি কোনো প্রাপ্তি নেই আমার। অনেকেই আমাকে ঈদের নায়িকার খেতাবও দিয়ে ফেলেছেন। এবারের ঈদেও আমার মুক্তি পাওয়া ছবিগুলো বেশ জমে উঠেছে। দুটো ছবিতেই আমার দুধরনের চরিত্র ছিল। বেলাশেষে দেখলাম অ্যাকশন বুবলীর জন্য দর্শক ‘সুপার হিরো’ ছবির পেছনে একটু বেশিই ছুটছেন। আমি ঈদের দিন মধুমিতা আর চম্পাকলিতে দর্শকের সঙ্গে বসে ছবি দুটো দেখেছি এবং দর্শক প্রতিক্রিয়ায় মুগ্ধ হয়েছি। বুবলীর কথায় এবারের ঈদটি তার দারুণ কেটেছে। ‘অন্য সময় ছবির কাজে বাসায় সময় দিতে পারি না। ঈদে বেশিরভাগ সময় বাসাতেই ছিলাম, নিজ হাতে মেহমানদারি করাটা বেশ উপভোগ করেছি।’

বুবলী বলেন, গত তিন বছরে তার ছয়টি ছবি মুক্তি পেয়েছে। এগুলো হলো- বসগিরি, শুটার, অহংকার, রংবাজ, সুপার হিরো এবং চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া। বুবলীর কথায়-‘আমার সৌভাগ্য, নিজের ফিল্মি ক্যারিয়ারটা অভিষেক হলো ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক নবাব শাকিব খানের সঙ্গে। আর এখন পর্যন্ত আমার সব ছবির নায়কই শাকিব খান। আর তাই অনেকে আমাদের পর্দা রসায়নের ভাঁজে ব্যক্তিগত প্রেমের রসায়ন খুঁজে ফেরেন। এ পর্যন্ত আমার সব ছবির নায়ক শাকিব এবং ঈদে আমাদের ছবি বেশি মুক্তি পায় বলে অনেকে হয়তো এমনটি ভেবে থাকেন। আসলে শাকিব আমার খুব ভালো একজন বন্ধু ছাড়া আর কিছু নন। যখন একটি জুটির বেশ কয়েকটি ছবি একাধারে ভালো যেতে থাকে তখন তাদের নিয়ে প্রেমের গল্প চাউর হয়। আমাদের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। এখন আমরা ‘ক্যাপ্টেন খান’ ছবিটিতে কাজ করছি। আপাতত আমি শাকিবেই মগ্ন থাকতে চাই।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow