Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৭
সেই তারকারা কী করছেন কী বলছেন
সেই তারকারা কী করছেন কী বলছেন

 নব্বই দশক থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ঢাকাই চলচ্চিত্রে আসা সেরা পাঁচ তারকা এখন আর এই জগতে নিয়মিত নেই। প্রচণ্ড দর্শকপ্রিয়তা থাকা সত্ত্বেও তারা কেন বড় পর্দা থেকে দূরে সরে গেছেন। এখন কী করছেন? তাদের বলা কথা তুলে ধরেছেন —আলাউদ্দীন মাজিদ

 

সংসারধর্ম বড় ধর্ম

শাবনাজ

নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শাবনাজ। অভিনয় করেছেন ‘চাঁদনী’, ‘জিদ’, ‘লাভ’, ‘সাক্ষাৎ, ‘আশা-ভালোবাসা’, ‘আঞ্জুমান’র মতো অনেক সফল চলচ্চিত্রে। এরপর সহশিল্পী চিত্রনায়ক নাঈমকে ভালোবেসে বিয়ে করে সংসারী হন। আর অভিনয়ে ফেরেননি। তার কথায় ‘বিয়ের পর সংসার নিয়ে মেয়েদের ব্যস্ত থাকতে হয়। মেয়েদের জন্য সংসারধর্মই বড় ধর্ম। আর অভিনয়ে ফিরতে চাই না। ভবিষ্যতে চলচ্চিত্রের সুদিন ফিরলে হয়তো নির্মাণে ফিরব। এখন চলচ্চিত্রের দৈন্যদশা দেখে খুব কষ্ট হয়। মনটা গুমড়ে কাঁদে।

 

নির্মাণে হয়তো আসতে পারি

নাঈম

১৯৯০ সালে প্রখ্যাত নির্মাতা এহতেশামের হাত ধরে বড় পর্দায় এসে ‘চাঁদনী’ ছবির মাধ্যমে দর্শক মন জয় করেন নাঈম। শাবনাজের সঙ্গে জুটি বেঁধে প্রচুর জনপ্রিয় ছবি উপহার দেন তিনি। একসময় শাবনাজকে বিয়ে করে সংসারী ও ব্যবসায়ী বনে যান তিনি। আর চলচ্চিত্রমুখী হননি তিনি। তার কথায় সংসার আর ব্যবসার সঙ্গে অভিনয় করতে গেলে কোনোটিতেই ঠিকভাবে মনোযোগ দেওয়া যায় না। বছর দুয়েক আগে চলচ্চিত্র নির্মাণে ফিরতে চাইলেও এই শিল্পের লোকসানি অবস্থার কারণে সেই ইচ্ছে পরিত্যাগ করেছি।

 

ভালো মানের ছবি নেই

শাবনূর

২০১৩ সালে সর্বশেষ শাবনূরকে দেখা যায় ‘কিছু আশা কিছু ভালোবাসা’ ছবিতে। এরপর গত বছর তার ‘পাগল মানুষ’ ছবিটি মুক্তি পেলেও এটি ছিল অনেক আগে কাজ শেষ করা একটি ছবি। ২০১৩ সাল থেকে বলতে গেলে সংসার সন্তান নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন তিনি। তার কথায় দীর্ঘ সময় চলচ্চিত্রকে সময় দিয়েছি। একটা সময় মনে হলো এবার সংসারে মনোযোগী হওয়া দরকার। তা ছাড়া ভালো মানের ছবিতো নেই। এ অবস্থায় বড় পর্দায় ফেরার প্রশ্নই আসে না। তবে মনের মতো ছবি পেলে আবার অভিনয়ে ফিরতে আপত্তি নেই তার।

 

ছবির সংখ্যা কমে গেছে

রিয়াজ

১৯৯৫ সালে সিনেমায় আসেন রিয়াজ। প্রথম ছবি ছিল ‘বাংলার নায়ক’। প্রচুর হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। ২০০৮ সালের পর থেকে বড় পর্দায় তাকে আর দেখা যায়নি তাকে। ২০১৬ সালের শুরুতে তার অভিনীত ‘সুইটহার্ট’ ও ‘কৃষ্ণপক্ষ’ মুক্তি পেয়ে যাওয়ার পর আর দর্শকরা তাকে বড় পর্দায় দেখতে পাননি। এরপর আবার অন্তরালে চলে যাওয়া। এখন টিভি নাটকে অভিনয় নিয়েই ব্যস্ত তিনি। তার কথায় ভালো ছবি নির্মাণ হয় না। তা ছাড়া ছবি নির্মাণের সংখ্যাও কমে গেছে। মনের মতো গল্প পেলে সেই ছবিতেই শুধু কাজ করব।

 

জয়ের দেখাশোনা করছি

অপু বিশ্বাস

২০০৬ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ব্যাপক জনপ্রিয়তার সঙ্গে বড় পর্দা আলোকিত করে রাখেন অপু বিশ্বাস। ২০১৬ সালে মা হওয়ার পর থেকে সন্তান নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। সরে যান অভিনয় থেকে দূরে। তার কথায় পুত্র জয়কে দেখাশোনা করা এখন তার প্রধান কাজ। ছেলেকে সময় দেব আর প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলব তাকে। মনেরমতো গল্প আর চরিত্র পেলে অভিনয়ে ফিরতে আপত্তি নেই আমার। সম্প্রতি কলকাতার একটি ছবিতে কাজ করছেন এবং দেশেও কয়েকটি ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব রয়েছে অপুর।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow