Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৯:৪০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৪:৩৯
কারিশমাকে ঘিরে তার বয়ফ্রেন্ডের পরিবারে অশান্তি
অনলাইন ডেস্ক
কারিশমাকে ঘিরে তার বয়ফ্রেন্ডের পরিবারে অশান্তি

বলিউড অভিনেত্রী কারিশমা কাপুর যে এক ওষুধ কোম্পানির সিইও সন্দীপ তোশনিওয়ালের সঙ্গে প্রেম করছেন তা অনেকেরই জানা। কিন্তু যেটা হয়তো জানা নেই, তা হল, এই সম্পর্ক নিয়ে সন্দীপের পরিবারে তুমুল অশান্তি চলছে।

স্ত্রী আশ্রিতা কিছুতেই ডিভোর্স দিতে রাজি না হওয়ায় তোশনিওয়াল আদালতে তাকে মানসিক রোগী বলে দাবি করেছেন।

এবিপি আনন্দের খবর, দীর্ঘ তিক্ত আইনি লড়াইয়ের পর স্বামী সঞ্জয় কাপুরের কাছ থেকে বছরকয়েক আগে ডিভোর্স আদায় করেন কারিশমা। তাদের দুই ছেলে-মেয়ের সঙ্গে শুধু মাঝে মধ্যে দেখা করার অধিকার পেয়েছেন সঞ্জয়। জবাবে কারিশমা সঞ্জয়ের পরিবারের বিরুদ্ধে পণের দাবি ও অন্যান্য হেনস্থার অভিযোগ প্রত্যাহার করেছেন।

এবার শোনা যাচ্ছে, কারিশমার বয়ফ্রেন্ড সন্দীপও ডিভোর্স দিতে চান তার স্ত্রী দন্ত চিকিৎসক আশ্রিতাকে। এই দম্পতিরও ১১ ও ৬ বছরের দুটি কন্যা রয়েছে। বেশ কয়েক বছর ধরে সন্দীপের সঙ্গে প্রেম করছেন কারিশমা। সন্দীপ ডিভোর্স পেলেই তারা বিয়ে করবেন বলে ঠিকঠাক। কিন্তু মুশকিল করেছে আশ্রিতার জেদ।

স্বামীর বিরুদ্ধে ব্যাভিচারের অভিযোগ করে আশ্রিতা জানিয়ে দিয়েছেন, যাই ঘটুক, সন্দীপকে তিনি কোন মতেই ডিভোর্স দেবেন না। কারিশমার আগেও সন্দীপের সঙ্গে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত এক ব্যক্তির সম্পর্ক ছিল বলে তার অভিযোগ।

সন্দীপের আইনজীবীর অবশ্য দাবি, গোটা অভিযোগই আশ্রিতার কল্পনাপ্রসূত, কারিশমার সঙ্গেও তার মক্কেলের কোন সম্পর্ক নেই। আশ্রিতা সাইকোলজিক্যাল ডিসঅর্ডারের শিকার। এ ব্যাপারে ডাক্তারি সার্টিফিকেট রয়েছে তাদের কাছে। কিন্তু আশ্রিতা কিছুতেই চিকিৎসা করাতে রাজি নন। এই পরিস্থিতিতে সন্দীপের পক্ষে এই বিবাহ টিকিয়ে রাখা সম্ভব নয়।

আশ্রিতার ঘনিষ্ঠরা আবার দাবি করেছেন, সন্দীপের যে বহু নারীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল, তার সব প্রমাণ তাদের কাছে রয়েছে। আগে আদালতে সন্দীপ প্রমাণ করুন, আশ্রিতা মানসিক রোগী, তারপর দেখা যাবে। সব মিলিয়ে কারিশমার দ্বিতীয় বিবাহের সম্ভাবনা এখন দূর অস্ত!

বিডি-প্রতিদিন/১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/মাহবুব

 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow