Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:০৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:০৫
১১০০ ছবিতে অভিনয়, গিনেস বুকে কোটিপতি ব্রহ্মানন্দম
অনলাইন ডেস্ক
১১০০ ছবিতে অভিনয়, গিনেস বুকে কোটিপতি ব্রহ্মানন্দম

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের সত্যেনাপল্লীতে জন্ম ব্রহ্মানন্দমের। পুরো নাম কান্নেগান্তি ব্রহ্মানন্দম। ১৯৮৫ সালে ‘আহা না পেলান্ত্রা’ ছবিটি দিয়ে অভিনয় জগতে হাতেখড়ি হয় তার।

অভিনয় জগতে পা রাখার আগে একটি বেসরকারি কলেজের অধ্যাপক ছিলেন ব্রহ্মানন্দম। বিখ্যাত তেলেগু পরিচালক জান্ধল্য সুব্রহ্মন্যম শাস্ত্রীর নজরে আসেন তিনি। তারপর থেকে অভিনয় শুরু। 

তার কমিক টাইমিংয়ে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন অভিনেতা চিরঞ্জীবী। তিনিই বহু ছবিতে কমেডিয়ানের চরিত্রের জন্য ব্রহ্মানন্দমের নাম সুপারিশ করতেন। ইন্ডাস্ট্রিতে ব্রাহ্মি নামেই অধিক খ্যাত এই অভিনেতা।

ইন্ডাস্ট্রিতে ৩০টা বছর পার করে ফেলেছেন। আজও তাকে নায়কের বন্ধুর ভূমিকায় দেখা যায়। ২০০৯ সালে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন ব্রহ্মানন্দম।

১১০০ বেশি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছিলেন ২০১৫ সালের মধ্যেই। তার পরই গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড বুকে নাম উঠে অভিনেতার। এই মুহূর্তে অভিনেতার ঝুলিতে রয়েছে ১১০০টি সিনেমার রেকর্ড।

পারিশ্রমিকের অঙ্কে বিশ্বের বড় বড় সব কমেডিয়ানদের পিছনে ফেলে দিয়েছেন ব্রক্ষ্মানন্দম। অভিনেতার এক দিনের পারিশ্রমিক ৫ লাখ টাকা। আর একটা ফিচার ফিল্মের জন্য এক কোটি টাকা পারিশ্রমিক নেন ব্রহ্মানন্দ।

এই মুহূর্তে প্রায় ৩৬০ কোটি টাকার মালিক ব্রহ্মানন্দম। নামীদামী প্রায় সবরকমের গাড়িই রয়েছে অভিনেতার গ্যারেজে। হায়দ্রাবাদের জুবিলি হিলসে বিরাট বাংলো রয়েছে ব্রহ্মানন্দমেরর। পরিবারে আছেন স্ত্রী এবং দুই পুত্র। দুই ছেলের নাম রাজা গৌতম এবং সিদ্ধার্থ। 

তিনি বহু বার বিতর্কে নাম জড়িয়েছেন। অভিনেত্রী অনুশকা শেট্টি সম্পর্কে এক বার মন্তব্য করেন, ‘হট জালেবি যা সকলেই খেতে চায়।’ অনুশকা তো বটেই, প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিলেন অনেকেই।

দিন কয়েক আগে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন তেলেগু ইন্ডাস্ট্রির এই ‘কমেডি কিং’। খ্যাতনামা কৌতুক অভিনেতার দ্রুত আরোগ্য কামনায় শুরু হয়ে যায় দেশজুড়ে প্রার্থনা। হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অভিনেতা এখন অনেকটাই সুস্থ।

অভিনেতার অসুস্থতার খবর শুনেই দেশজুড়ে নানান বয়সের মানুষ টুইট করতে থাকেন। অভিনেতার দ্রুত আরোগ্য কামনা করে সোশ্যাল মিডিয়ায় যেন ঝড় উঠে যায় এক নিমেষে।

বিডি প্রতিদিন/১৭ জানুয়ারি ২০১৯/আরাফাত

আপনার মন্তব্য

up-arrow