Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১২:২১
আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৪১

'আহা! জীবন! ভালবাসায় পূর্ণ জীবন'

ইফতেখায়রুল ইসলাম

'আহা! জীবন! ভালবাসায় পূর্ণ জীবন'

মাঝে মাঝে মনে হয় 'আমাদের জীবন পূর্ণ' এই কথাটি আসলে প্রতীকী!

পূর্ণতা আসলে কোথাও নেই। আর নেই বলেই আমাদের এত চেষ্টা।

সকালে থানার গেইটের কাছেই একজন অসুস্থ বৃদ্ধ চাচাকে পেলাম; বয়স আনুমানিক ৭০ বছর। তিনি কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন।

কারও সাথে কথা বলছেন না, কাউকে ধরতে দিচ্ছেন না। অদ্ভূত বিষয়টি ঘটলো তখন, যখন তিনি দুইজন পুলিশকে তাকে ছুঁতে দিলেন! ঠিকমত দাঁড়াতে না পারা চাচাকে কিছু খাবেন কিনা প্রশ্ন করতে হ্যাঁ সূচক সম্মতি দিলেন। রুটি, কলা, চায়ের কথা বলার পর তাতেও একমত হলেন।

নিজের শরীরে হাত দিতে না দেয়া অসুস্থ মানুষটি পুলিশের হাতেই রুটি, কলা খেলেন। এই নির্ভরতাটুকু বিস্মিত করলো।

যতটুকু জানা গেলো এই চাচার কাছের কেউ নেই। সবসময় আসলে কাছের কেউ থাকতেও হয় না। বৃদ্ধ চাচার শারীরিক অসুস্থতার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলো। বিশ্বাস করি সেখানেও পুলিশের মত দূরের কিছু ডাক্তার, চাচার আপনজনের চেয়েও বেশি কেউ হয়ে উঠবেন এবং হচ্ছেনও প্রতিনিয়ত।

বলছিলাম পূর্ণতা'র কথা! আমাদের জীবনের প্রতীকী পূর্ণতা, বাস্তবিক পূর্ণতায় এসে দাঁড়ায় যখন মানসিক ভারসাম্যহীন একজন বৃদ্ধ চাচা তাঁর অবলম্বন হিসেবে পুলিশকে বেছে নেন।

আহা! জীবন! ভালবাসায় পূর্ণ জীবন।

পুলিশ জীবনের পূর্ণতা ঠিক এখানেই।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

লেখক: সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডেমরা জোন)

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য