Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০
১১ দিনেও ব্যবসায়ীর হদিস নেই
ডিবি পরিচয়ে অপহরণ ঘটনায় তদন্ত শুরু

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পরিচয়ে ব্যবসায়ী মো. ফজলুল হক রহিমকে অপহরণ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। এদিকে ১১ দিনেও উদ্ধার হননি ব্যবসায়ী ফজলুল। ফলে উৎকণ্ঠায় ভুগছেন পরিবারের সদস্যরা। তদন্ত কমিটির সদস্য ডিএমপির মিরপুর বিভাগের উপকমিশনার কাইয়ুমুজ্জামান খান গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘বিষয়টি অত্যন্ত স্পর্শকাতর। তবে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হবে। সুষ্ঠু তদন্ত শেষেই প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।’ অপহৃত ব্যবসায়ীর স্ত্রী তাহমিনা আক্তার বৃষ্টি বলেন, ‘আমি নিশ্চিত আমার স্বামীকে ডিবিই অপহরণ করেছে। অভিযোগ দেওয়ার কারণেই ওরা আমার স্বামীকে তুলে নিয়ে গেছে। এখন আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যরা ঘর থেকে বের হতেই ভয় পাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘বাবার শোকে সন্তানরা খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে দিয়েছে। রীতিমতো শোকে পাথর হয়ে গেছে ওরা। আমি ওদের কী দিয়ে প্রবোধ দেব?’ প্রসঙ্গত, গত শনিবার বাংলাদেশ প্রতিদিনে সংবাদ প্রকাশের পর ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বহুল আলোচিত এই ঘটনার তদন্তে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) কৃষ্ণপদ রায়ের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে দেন। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন ডিএমপির উপকমিশনার (মিরপুর) কাইয়ুমুজ্জামান খান ও ডিবির উপকমিশনার (পশ্চিম) মো. সাজ্জাদুর রহমান। সাত কার্যদিবসের মধ্যে কমিটি তাদের প্রতিবেদন পেশ করবে। ডিএমপি সূত্র জানায়, তদন্তে ফজলুর দুটি ফ্ল্যাট লিখে নেওয়া এবং চেকের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে বিপুল পরিমান টাকা উত্তোলনের অভিযোগের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হবে। একই সঙ্গে ঘটনার নেপথ্যে অন্য কোনো বিষয়ের সম্পৃক্ততা রয়েছে কি না- তাও খতিয়ে দেখা হবে। আজ-কালের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে ভিকটিমের পরিবারের সদস্যদের ডিএমপি সদর দফতরে ডাকা হবে।

up-arrow