Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৪ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ জুন, ২০১৬ ২৩:১৭
অন্যায় কর চাপালে আদায় কঠিন
-----------------এফবিসিসিআই
নিজস্ব প্রতিবেদক

কোনো ভ্যাট বা কর অন্যায়ভাবে ব্যবসায়ীদের ওপর চাপিয়ে দিলে, তা আদায় করা কঠিন হবে বলে মন্তব্য করেছেন এফবিসিসিআইর সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ। তিনি বলেন, ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট আগের বাজেটগুলোর তুলনায় বেশ জটিল।

বাজেটে ব্যবসায়ীরা যেসব সুপারিশ দিয়েছিল তার কোনো প্রতিফলন হয়নি মন্তব্য করে আবদুল মাতলুব আহমাদ বলেন, এফবিসিসিআইর পক্ষ থেকে সাতটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। যার কোনো প্রতিফলন দেখতে পারিনি। অনেক অ্যাসোসিয়েশন ও ব্যবসায়ী সংগঠনের দাবির প্রতিফলন বাজেটে ঘটেনি। গতকাল মতিঝিলে এফবিসিসিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন তিনি। এ সময় সংগঠনের সহ-সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, মাহবুবুল আলমসহ পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন। মাতলুব আহমাদ বলেন, অনেক জটিল করে বাজেট প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তাই পুরো বাজেট বিশ্লেষণ করে আগামী ৭ অথবা ৮ জুন এফবিসিসিআইর পক্ষ থেকে বিস্তারিত প্রতিক্রিয়া জানানো হবে। এবারের বাজেট বিশাল। এ বিশাল বাজেটে করের আওতা না বাড়িয়েই আয় বাড়ানোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বাজেটের আকার বড় হওয়া মানেই রাজস্বের আকার বড় হবে। রাজস্বের আকার বড় হওয়া মানেই ব্যবসায়ীদের আরও টাকা দিতে হবে। আমরা টাকা দিতে প্রস্তুত। কিন্তু সাধ্যের মধ্যে থাকতে চাই। ফেডারেশন সব সময় কালো টাকার বিরুদ্ধে। তবে টাকা যদি পাচার হয়ে যায়, তাহলে টাকা দেশের ভেতর রাখার জন্য সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে। হয়রানির কারণে অনেক ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ হয়ে গেছে। সরকার কীভাবে আরও ট্যাক্স আদায় করা যায় এবং ছোট ছোট ব্যবসায়ীদের ওপর ট্যাক্স আদায়ের নতুন ফর্মুলা দিয়েছে। অনেক অ্যাসোসিয়েশন এ বাজেট গ্রহণ করতে পারছে না। আগামী বাজেটে আমরা বাজেট মিটিং (সভা) করব কি করব না, সেটা নিয়েও আমাদের চিন্তা করতে হবে। আমরা বলে যাব, আর ওনারা শুনবেন, কিন্তু কোনো প্রতিফলন দেখব না, তাহলে আমরা এত সময় নষ্ট করতে যাব কেন। সংগঠনের প্রথম সহ-সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে পোশাক খাতের করপোরেট করহার ৩৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ করা হয়েছে। অপরদিকে উেস কর দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১ দশমিক ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। আমরা চাই শুধু মুনাফার ওপর কর ধরা হোক। তা না হলে রপ্তানি আয়ের যে প্রবৃদ্ধি দেখা যাচ্ছে, তা মুখ থুবড়ে পড়বে। সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইর সহ-সভাপতি মাহবুবুল আলম, পরিচালক হাবিবুল্লা ডন, হারুনর রশিদ ও শামীম আহমেদ প্রমুখ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow