Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ৬ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৫ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৩
উত্তরায় কর্নেলের মাকে গলা কেটে হত্যা
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকায় মনোয়ারা সুলতানা (৬৪) নামে এক বৃদ্ধাকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, গত শনিবার রাতে সেক্টর-৯, রোড-১ এর ১১ নম্বর বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে মনোয়ারার  লাশ উদ্ধার করা হয়।

লাশের মুখমণ্ডল ও শরীরের আরও কয়েকটি স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। পুলিশ বলছে, বাসার ড্রইং রুমের সোফাসেটে হেলানো অবস্থায় লাশটি ছিল। এ সময় ঘরের আসবাবপত্র এলোমেলো পাওয়া গেছে। হত্যার ধরন দেখে মনে হয়, এর সঙ্গে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে। কারণ বাসার আলমারি ভাঙা থাকলেও সেখান থেকে কিছুই খোয়া যায়নি। এমনকি সেখানে নগদ দুই লাখ টাকা ছিল, তাও দুর্বৃত্তরা নেয়নি। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই বাড়ির পাঁচ ভাড়াটিয়াকে আটক করা হয়েছে। জানা গেছে, মনোয়ারা মৃত ডা. আবু মোহাম্মদ ইউসুফের স্ত্রী। ওই বাসায় তিনি একাই থাকতেন। নিহতের তিন ছেলের মধ্যে বড় ছেলে ইকবাল ইবনে ইউসুফ অস্ট্রেলিয়ায়, মেঝো ছেলে কর্নেল খালেদ বিন ইউসুফ যশোর ক্যান্টনমেন্টে এবং ছোট ছেলে আরমান ইবনে ইউসুফ আমেরিকায় থাকেন।

আরও দুই লাশ উদ্ধার : উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকায় ইকবাল হোসেন (২২) নামে এক নির্মাণ শ্রমিক এবং শাহবাগে শান্তা (৩২) নামে এক গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই হেদায়েত হোসেন মোল্লা জানান, গত শনিবার রাতে সেক্টর-১০, রোড-১৩ এর ৪৮ নম্বর বাড়ির ৪র্থ তলা থেকে ইকবাল হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়। তার হাত-পা বাঁধা এবং গলায় গামছা পেঁচানো ছিল। তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।  শাহবাগ থানার এসআই সুব্রত গোলদার জানান, পরিবাগের ১০ নম্বর বাড়ির ৯ম তলায় জনৈক হুমায়ুন কবীরের বাসার গৃহকর্মী শান্তা গত শনিবার রাতে ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ওই বাসার মালিকের ছেলে ও দুই কাজের বুয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।




up-arrow