Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ জুন, ২০১৬ ২৩:০৩
জনজীবনে আতঙ্কভাব বিরাজ করছে
রফিকুল ইসলাম রনি
জনজীবনে আতঙ্কভাব বিরাজ করছে
খালেকুজ্জামান

বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান বলেছেন, দেশে নষ্ট রাজনীতি ভ্রষ্ট পথে পরিচালিত হচ্ছে। যে কারণে দেশের শাসন-প্রশাসন ব্যবস্থায় অরাজকতা বিরাজ করছে।

দেশে বিভিন্ন মাত্রায় এখন হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হচ্ছে। মানুষ প্রত্যক্ষ সাক্ষী হলেও ভয়ে সাক্ষী দিচ্ছেন না। কারণ পুলিশ প্রশাসনের ওপর মানুষের আস্থা কমে গেছে। আবার পুলিশও ক্ষমতাসীনদের চাপে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে না। হত্যা-গুম থেকে শুরু করে নানাভাবে সাধারণ জনগণ নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে। কখন কার যে কী হয়, এ নিয়ে জনজীবনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গতকাল বিকালে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে মোবাইল ফোনে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। সমসাময়িক রাজনীতি, গুপ্তহত্যা, নতুন বাজেটসহ বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোকপাত করেন প্রবীণ এ বাম রাজনৈতিক।

খালেকুজ্জামান বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে যেসব হত্যাকাণ্ড ঘটছে তা একটি কারণে নয়। নানা সমীকরণের কারণে হত্যা সংঘটিত হচ্ছে। এদের মধ্যে মতাদর্শ কারণে হত্যাকাণ্ড হচ্ছে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিশেষভাবে টাগের্ট কিলিং হচ্ছে। একটি অশুভশক্তি ঘোলাজলে মাছ শিকারের জন্য হত্যাকাণ্ড ঘটাচ্ছে। আবার পারিবারিক বিরোধের কারণে হত্যাকাণ্ড ঘটছে। স্বার্থের দ্বন্দ্বের কারণেও হত্যাকাণ্ড হচ্ছে। বর্তমানে যে অরাজক পরিস্থিতি বিরাজ করছে তার মূল বিষয়কে ছাপিয়ে নিত্যদিন নতুন নতুন ইস্যু তৈরি হচ্ছে। তিনি বলেন, যেসব ঘটনা ঘটছে তার অধিকাংশই জনগণ প্রত্যক্ষ সাক্ষী। কিন্তু তারা ভয়ে সাক্ষী দিতে আসছে না। কিন্তু যারা এসব ঘটনা ঘটাচ্ছে তাদের যে জনসমর্থন আছে তাও নয়।

এসব সংকট থেকে মুক্তির উপায় কী জানতে চাইলে বাসদের সাধারণ সম্পাদক বলেন, হত্যাকাণ্ডসহ অপরাজনীতির বিরুদ্ধে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে হবে। জনগণকে পূর্ণ আস্থায় আনতে হবে। মানুষকে বিশ্বাস করাতে হবে, যে আইন সবার জন্য সমান। তবে পুলিশ প্রশাসনকেও স্বাধীনভাবে ক্রিয়া পরিচালনা করতে দিতে হবে।

প্রবীণ এ বাম নেতা বলেন, তৃণমূলের রাজনীতিও আজ দুর্বৃত্তদের হাতে জিম্মি। সব জায়গায় একটা দুঃসহ পরিস্থিতি দেখছি। তবে এত কিছুর পরও জনগণের মধ্যে এক ধরনের জাগরণের একটি প্রতিচ্ছবি দেখা যাচ্ছে। আমার বিশ্বাস যারা সত্যিকারের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী, সেসব জনগণ এগিয়ে আসবেন একটি বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার জন্য।

আগামী অর্থ বছরের বাজেট সম্পর্কে খালেকুজ্জামান বলেন, যে প্রক্রিয়ায় বাজেট করা হয়েছে—সেটা গণতান্ত্রিক নয়। তৃণমূল জনগণের স্বার্থ রক্ষা হয়নি। বাজেট ঘোষণার জন্য তৃণমূল থেকে ওপরে আসার যে প্রক্রিয়া তা সঠিক হয়নি। গরিবদের জন্য করের বোঝা চাপানো হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে যে উন্নয়ন হচ্ছে না তা নয়, তবে উন্নয়নের সিংহভাগই দুর্নীতি হচ্ছে।

up-arrow