Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১২ জুন, ২০১৬ ২২:৪৭
যুক্তরাষ্ট্রে সমকামীদের ক্লাবে ভয়াবহ হামলা, নিহত ৫০
প্রতিদিন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের অরল্যান্ডো শহরে সমকামীদের একটি নাইটক্লাবে এক বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ৫৫ জন। স্থানীয় সময় শনিবার মধ্যরাতে শহরের পালস নাইটক্লাবে এ ঘটনা ঘটে। এএফপি জানিয়েছে, ওই বন্দুকধারী একজন আফগান বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক। তার নাম ওমর মতিন (৩০)। তিনি ফ্লোরিডার পোর্ট সেন্ট লুসিসে বসবাস করতেন। ওই বন্দুকধারী ক্লাবটিতে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি শুরু করেন। একপর্যায়ে জড়ো হওয়া ব্যক্তিদের জিম্মি করে রাখা হয়। এর তিন ঘণ্টা পর পুলিশ ঢুকে ওই বন্দুকধারীকে হত্যা করে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। অরল্যান্ডোর পুলিশের প্রধান জন মিনা গতকাল এ হতাহতের সংখ্যা জানান।

শুক্রবার অরল্যান্ডোর এক কনসার্টে গুলিতে ২২ বছর বয়সী পপসংগীতশিল্পী ক্রিস্টিনা গ্রিমি নিহত হওয়ার একদিন না  পেরোতেই ওই নাইটক্লাবে গুলিবর্ষণে প্রাণহানির ঘটনা ঘটল। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বন্দুকধারীর হাতে অ্যাসল্ট রাইফেল এবং হ্যান্ডগান ছিল এবং সে নাইটক্লাবের ভিতরে অনেককে জিম্মি করেছিল। নিহত হওয়ার আগে পুলিশের সঙ্গে তার গুলিবিনিময় হয়। পুলিশ একে একটি ‘সন্ত্রাসবাদী ঘটনা’ বলে আখ্যায়িত করেছে। কিন্তু তারা এটাও বলছে, এই সন্ত্রাস অভ্যন্তরীণ নাকি আন্তর্জাতিক তা তারা এখনো জানে না। পুলিশ বলছে, বন্দুকধারী একা ছিল।

ওই ক্লাবে থাকা এক ব্যক্তি রিকার্ডো আলমোডোভার পাল?স ক্লাবের ফেসবুক পাতায় লিখেছেন, স্থানীয় সময় রাত ২টায় বন্দুকধারী গোলাগুলি শুরু করে। তিনি লেখেন, ‘ওই সময় যারা নাচছিল এবং বারের কাছে যারা ছিল সবাই মাথা নিচু করে ফেলে।

আর আমরা যারা বারের পেছনের দরজার কাছে ছিলাম তারা কোনো রকমে ক্লাব থেকে বের হয়ে দৌড় দিই।’

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের স্পেশাল এজেন্ট রন হারপার সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, দুর্ভাগ্যজনক হলো ক্লাবে হামলায় ৫০ জন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন আরও ৫৫ জন। তাদের স্থানীয় তিনটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, শতাধিক মানুষ ওই ক্লাবে ফুর্তি করছিল। ওই ক্লাবটি অরল্যান্ডো শহরের সবচেয়ে জমজমাট সমকামী ক্লাব বলে পরিচিত। এএফপি, বিবিসি।




up-arrow