Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১২ জুন, ২০১৬ ২২:৪৮
পাবনায় আশ্রমের সেবক খুনে শিবির নেতা গ্রেফতার
পাবনা প্রতিনিধি

পাবনায় ঠাকুর অনুকূলচন্দ্র সৎসঙ্গ সেবাশ্রমের সেবায়েত নিত্যরঞ্জন পাণ্ডেকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আরিফুল ইসলাম নামে এক শিবির নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত শনিবার রাতে চর ঘোষপুর এলাকা থেকে তাকে আটকের পর গতকাল তাকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শেখ সেলিম জানান, শনিবার রাতে পাবনা সদর উপজেলার চর ঘোষপুর এলাকা থেকে আরিফুলকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়। তাকে থানায় আনার পথে পুলিশের গাড়ি রাস্তার পাশের একটি খালে পড়ে গেলে আরিফ ও কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পরে আরিফসহ আহত পুলিশ সদস্যদের পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষ হলেই আরিফুলকে আদালতে হাজির করা হবে। জানা গেছে, আরিফ পাবনা সদরের চর ঘোষপুর এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে এবং শহর শাখা ছাত্রশিবিরের সাহিত্য সাংস্কৃতিক সম্পাদক। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে। হত্যাকাণ্ডের তদন্ত সম্পর্কে সহকারী পুলিশ সুপার জানান, সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পুলিশ তদন্ত কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। যে কোনো মূল্যে ঘটনার প্রকৃত হোতাদের খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনা হবে। এরই মধ্যে পুলিশি তদন্তে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদিও পাওয়া গেছে।

খালেদার প্রতিনিধি দল : পাবনার হেমায়েতপুরে শ্রীশ্রী ঠাকুর অনুকূলচন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের সেবক নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে হত্যার ঘটনায় সমবেদনা জানাতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রেরিত ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল গতকাল সকালে আশ্রম এবং হত্যাকাণ্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। প্রতিনিধি দলটি এ সময় নিহতের স্বজন ও আশ্রমবাসীর সঙ্গে কুশল বিনিময় করে। দলের নেতৃত্ব দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী। প্রতিনিধি দলে আরও ছিলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুণ্ডু, সাবেক যুগ্ম সচিব তপন মজুমদার, কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট জন গোমেজ, যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক অমলেন্দু দাস অপু ও মাগুরা সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মিহির কান্তি বিশ্বাস। পরে অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, দেশে দীর্ঘদিন ধরে উদার গণতান্ত্রিক পরিবেশ অনুপস্থিত। তাই জঙ্গি, সন্ত্রাসী আর মৌলবাদীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। অথচ সরকার কোনো হত্যাকাণ্ডেরই কূলকিনারা করতে পারছে না। তারা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি উল্লেখ করেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সরকার যদি চায় তাহলে বিএনপি যে কোনো ধরনের সহযোগিতা করবে।




up-arrow