Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১৫ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৬ ২২:৫৭
গ্রেফতার ছাড়াল সাড়ে ১১ হাজার
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশজুড়ে সাঁড়াশি অভিযানে গতকাল পর্যন্ত ১৪৫ জঙ্গিসহ ১১ হাজার ৬৪৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদিকে গতকালও দেশজুড়ে সাঁড়াশি অভিযানে ২৬ জঙ্গিসহ বিভিন্ন মামলায় ৩ হাজার ১১৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর মধ্যে ১২ জন জেএমবি, ৫ জন হিজবুত তাহরির, একজন আল্লাহর দল, একজন হুজি এবং ৭ জন অন্যান্য জঙ্গি সংগঠনের সদস্য। সোমবার ভোর ৬টা থেকে গতকাল ভোর ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় এদের গ্রেফতার করা হয়। গতকাল পুলিশ সদর দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা রেঞ্জের নারায়ণগঞ্জে ১ হুজি, টাঙ্গাইলে ১ জেএমবি, ময়মনসিংহ রেঞ্জের ময়মনসিংহে ২ জঙ্গি, শেরপুরে ২ জঙ্গি, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১ জঙ্গি (আফগান-ফেরত), নোয়াখালীতে ১ হিজবুত তাহরির, রাজশাহী রেঞ্জের রাজশাহীতে ১ জেএমবি, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১ হিজবুত তাহরির, নওগাঁয় ১ জেএমবি, বগুড়ায় ১ জেএমবি, খুলনা রেঞ্জের যশোরে ২ হিজবুত তাহরির, ঝিনাইদহে ১ জেএমবি ও ১ জন আল্লাহর দল, কুষ্টিয়ায় ১ হিজবুত তাহরির, রংপুর রেঞ্জের রংপুরে ১ জেএমবি, গাইবান্ধায় ১ জেএমবি, দিনাজপুরে ১ জেএমবি, ঠাকুরগাঁওয়ে ১ জেএমবি, পঞ্চগড়ে ১ জেএমবি, বরিশাল রেঞ্জের ঝালকাঠীতে ১ জেএমবি, পটুয়াখালীতে ১ জেএমবি এবং ঢাকা মহানগরে ২ জন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার ব্যক্তিদের কাছ থেকে ২৩টি আগ্নেয়াস্ত্র, যার মধ্যে ৭টি বিদেশি পিস্তল, ২টি দেশি পিস্তল, একটি এলজি, ৪টি রিভলবার, ২টি শ্যুটারগান, ২টি ওয়ান শ্যুটারগান এবং ৫টি দেশি পাইপগান রয়েছে। এ ছাড়া ১০টি ম্যাগাজিন, ১৮ রাউন্ড গুলি, ১১টি কার্তুজ, ৬টি ককটেল, ৫০০ গ্রাম গান পাউডার, ৪টি চাপাতি, ২টি কালো স্কুলব্যাগ, বেশ কিছু সরকারবিরোধী লিফলেট, উগ্রপন্থি বই এবং অন্যান্য ধারালো অস্ত্রসহ বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮৭টি মোটরসোইকেল জব্দ করা হয়েছে। গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, মাদক উদ্ধার ও অন্যান্য মামলায় মোট ৩ হাজার ৮৯ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার আসামিদের মধ্যে পরোয়ানামূলে ২ হাজার ৩৬৮ জন, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার মামলায় ৩৮ জন, মাদক উদ্ধার মামলায় ২৯৫ জন এবং অন্যান্য মামলায় ৩৮৮ জন রয়েছেন।

নিজস্ব প্রতিবেদক ও জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো আরও খবর—

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা থেকে নিষিদ্ধ-ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য গরিব উল্লাহ আকন্দ ওরফে গরিবুল্লাহ মুন্সিকে (৬০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সকালে উপজেলার দুল্লা ইউনিয়নের বিন্যাকুড়ি গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মুক্তাগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফজলুল করিম জানান, তার বিরুদ্ধে মুক্তাগাছা থানায় হত্যা, ডাকাতি, জরুরি বিধিমালা ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে চারটি মামলা রয়েছে। তিনি বাংলাভাইর সেকেন্ড ইন কমান্ড ছিলেন। এদিকে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ হালুয়াঘাট উপজেলায় সোমবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে ইছাহাক (৩০) নামের এক জেএমবি সদস্যকে আটক করেছে। ওসি কামরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন,  ইছহাকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা রয়েছে। এর আগেও তিনি তিন বছর জেলে ছিলেন। পরে জামিনে বের হয়ে আসেন। চট্টগ্রাম : জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান চালিয়ে জামায়াত-শিবিরের ১১ নেতা-কর্মীসহ ২১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে এর মধ্যে জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে কাউকে আটক করা হয়নি বলে পুলিশ জানায়। চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) রেজাউল মাসুদ বলেন, সোমবার রাতে চট্টগ্রামের ১৬ থানায় অভিযান চালিয়ে ২১৫ জনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে দুজন শিবির ও নয়জন জামায়াতের নেতা-কর্মী। এ ছাড়া অভিযানে দুটি শটগান, আটটি কার্তুজ, ৩৫ লিটার চোলাই মদ, ৫৫৮ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ : পুলিশের সাঁড়াশি অভিযানে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বহারা বাহিনীর প্রধান ডাকাত সর্দার সিরাজুল ইসলাম সিরাজ ও বিএনপি-জামায়াতের দুই নেতা-কর্মীসহ বিভিন্ন মামলার ৬৬ আসামিকে আটক করা হয়েছে। অভিযানকালে সিরাজুল ইসলামের কাছ থেকে ৭.৫ মডেলের একটি রিভলবার ও এক রাউন্ড গুলিও উদ্ধার করা হয়। সোমবার সকাল থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন থানায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের শুরুর পর থেকে বিএনপি-জামায়াত নেতা-কর্মীদের মধ্যে গ্রেফতার আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow