Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১৬ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৬
এসপিপত্নী খুন
পুলিশের তদন্তে অগ্রগতি নেই
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার ইকবাল বাহার জানিয়েছেন, পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুর খুনের ঘটনা তদন্তে দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি নেই। তবে তিনি বলেন, ‘আমাদের হাতে সম্ভাব্য যত অপশন আছে সব খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কোনো অপশন আমরা খালি রাখছি না। তদন্ত কাজ দ্রুত শেষ করার চেষ্টা হচ্ছে।’ গতকাল দুপুরে সিএমপি কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান। সিএমপি কমিশনার বলেন, মিতু খুনের ঘটনায় আটক আবু নছর গুন্নু ও শাহ জামান রবিন জড়িত কি না— এ বিষয়ে আমরা এখনো পুরোপুরি নিশ্চিত নই। তাদেরকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আরও চার দিন তারা পুলিশের হেফাজতে থাকবে। এ ঘটনায় তাদের কাছ থেকে তথ্য আদায়ের চেষ্টা চলছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ফলাফল জানাতে পারব।  টার্গেট কিলিং প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের মাঠপর্যায় থেকে তথ্য কম আসছে। এ জন্য জনসাধারণের প্রতি বলব, আমাদের তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন। পর্যাপ্ত তথ্য পেলে এ ধরনের ঘটনা মোকাবিলা করা সম্ভব।

গুন্নুর রিমান্ড বাতিল আবেদন খারিজ : মাহমুদা খানম মিতু খ?ুনের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আটক আবু নছর গুন্নুর (৪৫) রিমান্ড বাতিলের আবেদন নামঞ্জুর করেছে আদালত। গতকাল দুপুরে গুন্নুর পক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ মো. শাহ নূরের আদালতে রিমান্ড বাতিলের আবেদন জানানো হয়। প্রসঙ্গত, গত ৫ জুন সকালে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় নগরীর ও আর নিজাম রোডে দুর্বৃত্তদের উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত ও গুলিতে নিহত হন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু। এ ঘটনায় বাবুল আক্তার নিজে বাদী হয়ে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।




এই পাতার আরো খবর
up-arrow