Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১৭ জুন, ২০১৬ ২৩:২৩
মধ্যরাতে ঘরে ঢুকে কলেজছাত্রকে গুলি করে হত্যা
নোয়াখালী প্রতিনিধি
মধ্যরাতে ঘরে ঢুকে কলেজছাত্রকে গুলি করে হত্যা

সন্ত্রাসীরা সোনাইমুড়ী উপজেলার বটগ্রামের এক বাড়িতে ঢুকে কলেজছাত্রকে গুলি করে হত্যা করেছে। গতকাল রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত ছাত্রের নাম আসিফ উদ্দিন শান্ত। তিনি  বাড়ির সাহাব উদ্দিন মাস্টারের ছেলে এবং নোয়াখালী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স (গণিত বিভাগের) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

পুলিশ জানিয়েছে, কয়েক দিন আগে আসিফের ছোট ভাইর সঙ্গে মোবাইল নিয়ে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে ওই রাতে ১০/১২ জনের সন্ত্রাসী ঘরের দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে সবাইকে জিম্মি করে। সন্ত্রাসীরা আসিফের বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে। এ সময় আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পথে আসিফ মারা যান। সন্ত্রাসীদের গুলিতে আরও ৩ জন আহত হন। তারা হলেন মনির হোসেন, মোহন ও বেলাল হোসেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।আসিফ উদ্দিন শান্তর মামা হাবীবুর রহমান বলেন, ‘বুধবার বিকালে আমার ছোট ভাগিনা শাওন বাড়ির সামনে রাস্তার পাশে নোকিয়া মোবাইলে গেমস খেলছিল। ওই সময় রাস্তা দিয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে এলাকার সন্ত্রাসী শাহেদসহ ৩ জন আসছিল। শাওনকে দেখে তারা মোটরসাাইকেল থামিয়ে নাম ও বাড়ির নাম জিজ্ঞেস করে। এরপর তারা শাওনকে মারধর করে। এক পর্যায়ে শাওন দৌড়ে পাশে মুজিবুর রহমানের বাড়িতে ঢুকে পড়লে শাহেদ ও তার সঙ্গীরাও ওই বাড়িতে ঢুকে পড়ে। ওই বাড়ির লোকজন তখন শাহেদসহ সঙ্গীদের ধরে মারধর করেন। এর জের ধরে শাহেদসহ ৭/৮ জন ওইদিন রাত ১১টার দিকে মুজিবুর রহমানের বাড়ির ২টি ঘর কুপিয়ে-ভাংচুর করে চলে যায়। পরে গতকাল রাত ১টার দিকে আমাদের ঘরে ঢুকে ভাগিনা শান্তকে গুলি করে।’ সোনাইমুড়ী থানার ওসি কাজী হানিফুল ইসলাম জানান, নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের পরিবার মামলা করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে ছেলের নিহতের ঘটনায় আসিফের মা হাছিনা আক্তার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকেও নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।




এই পাতার আরো খবর
up-arrow