Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • ফুটবল বিশ্বকাপে বিদেশি পতাকা উত্তোলন বন্ধে হাইকোর্টে রিট
  • নারায়ণগঞ্জে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড
  • নাশকতার দুই মামলায় খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন, মানহানির মামলায় খারিজ
  • রাঙামাটিতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে ৩ ইউপিডিএফ কর্মী নিহত
প্রকাশ : রবিবার, ১৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৮ জুন, ২০১৬ ২২:৩৯
এসপিপত্নী খুন
গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেননি গুন্নু ও রবিন
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যায় জড়িত অভিযোগে গ্রেফতার ‘শিবির ক্যাডার’ আবু নছর গুন্নু ও শাহ জামান ওরফে রবিনের কাছ থেকে কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পায়নি পুলিশ। তারা কোনো তথ্য না দিয়েই নিজেদের নির্দোষ দাবি করছেন। তাদের সাত দিনের রিমান্ডের জিজ্ঞাসাবাদ প্রায় শেষ পর্যায়ে হলেও কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য না পাওয়ায় দ্বিতীয় দফায় তাদের রিমান্ডে আনার চিন্তাভাবনা করছেন তদন্ত কর্মকর্তারা। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে গুন্নু ও রবিন তেমন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেননি। প্রয়োজনে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফের রিমান্ড চাওয়া হবে।’ তবে তদন্ত-সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কিছু তথ্য পেয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তারা। বিভিন্ন সোর্সের মাধ্যমে পাওয়া তথ্যগুলো যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। সব তথ্য বিশ্লেষণ করে অল্প সময়ের মধ্যে একটা জায়গায় আসতে পারে এ মামলার তদন্ত। মিতু হত্যায় জড়িত অভিযোগে গ্রেফতার আবু নছর গুন্নু ও শাহ জামান ওরফে রবিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১২ জুন সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে চট্টগ্রামের একটি আদালত। রিমান্ড মঞ্জুরের প্রথম দিনই রবিনকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন তদন্ত কর্মকর্তারা। বর্তমানে তারা পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদে তারা মিতু হত্যায় সম্পৃক্ত নন বলে দাবি করেন। প্রসঙ্গত, ৫ জুন নগরীর জিইসির মোড় এলাকায় ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হন এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু। এ ঘটনায় বাবুল আক্তার বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন এবং আসামিদের গ্রেফতারে কাজ করছে ডিবি, র‌্যাব, সিআইডি, পিবিআই, সিটিআইসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অন্য সংস্থাগুলো।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow