Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ২৬ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৫ জুন, ২০১৬ ২৩:০০
আইজির কথা বলে ডেকে নেওয়া হয় বাবুলকে
বললেন শ্বশুর
বিশেষ প্রতিনিধি

পুলিশের মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) কথা বলে এসপি বাবুলকে তার শ্বশুর মোশাররফ হোসেনের বনশ্রীর বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায় পুলিশ। এ সময় পুলিশ জানায়, স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বাবুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

১৫ মিনিট পর তিনি বাসায় ফিরে আসবেন। সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন তার বাসায় উপস্থিত সংবাদ কর্মীদের ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, রাত আনুমানিক ১টা ৫ মিনিট হবে। বাবুল আক্তার কেবল বাসায় এসেছে, এর মধ্যে খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুল হোসেন বাসায় আসেন। তার পেছনে পেছনে মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার আনোয়ার হোসেন প্রবেশ করেন। তারা বললেন— আইজিপি স্যার যেতে বলেছেন। আমি জিজ্ঞাসা করলাম কোথায়? তারা উত্তরে বললেন, স্যারের বাসায়। ১৫ মিনিটের জন্য যাচ্ছেন, একটু পরই আবার চলে আসবেন। এরপর তারা চলে যান।

মোশাররফ হোসেন বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় অফিসার মেসে ২৪তম বিসিএস পুলিশ কর্মকর্তারা আমার মেয়েকে নিয়ে শোকসভা ও ইফতার পার্টির আয়োজন করে।

সেখানে ছিল বাবুল আক্তার। সেখান থেকে রাত ১০টার দিকে রমনা কমপ্লেক্স আসেন। তার দুই সন্তান তার সঙ্গেই ছিল। আইজিপির সঙ্গে দেখা করবে বলে রমনা কমপ্লেক্সের একজন পরিচিতের বাসায় তাদের রেখে দেখা করতে যায়। এরপর আনুমানিক রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাবুল সেখান থেকে বাচ্চাদের নিয়ে বাসায় আসেন। এর কিছুক্ষণ পরই খিলগাঁও থানার ওসি আসেন। ওসি এসে কী বললেন? এর জবাবে তিনি বলেন, আমি ধারণা করছি, তাকে অনুসরণ করতে করতেই ওসি এসেছেন। তা না হলে বাবুল বাসায় প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে তিনি কীভাবে বাসায় এলেন? ওসির পেছনেই আবার মতিঝিলের ডিসি আসেন। তিনি একটু পর আসেন। ওসি প্রথমে বাবুলের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর মতিঝিলের ডিসি কথা বলেন। তাদের সঙ্গে কী কথা হয়? এমন প্রশ্নের জবাবে মোশাররফ হোসেন বলেন, বাসায় খুবই অল্প সময় ছিলেন। এলো আর নিয়ে গেল। আইজিপির কথাটাই বললেন তারা। এর আগে কখনো এভাবে নিয়েছে কিনা এর উত্তরে তিনি বলেন, এর আগে পরশুদিন ইফতারের আগে আইজিপি স্যারের বাসায় ইফতারের দাওয়াত ছিল বলে ডেকে নিয়েছিল পুলিশ। আবার ফিরেও আসে। তবে এবার ১৫ মিনিটের কথা বলে নিয়ে যাওয়া হয়। অনেক সময় হলেও আর ফিরে আসেনি। এতেই আমাদের সন্দেহ হয়। ১৫ মিনিটের কথা বলে বাবুলকে ফেরত দেওয়া হয়েছে ১৫ ঘণ্টা পরে। মিতুর এবং তার স্বামীর মধ্যে কোনো দূরত্ব ছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোনো তথ্য নেই। আমরা জানি তারা সুখী দম্পতি ছিল। শনিবার সকালে বাবুল আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদের কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি জানান, মিতু হত্যা মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে হঠাৎ এভাবে গভীর রাতে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের কারণ তিনি জানাননি। গত ৫ জুন চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড়ে পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় পাঁচলাইশ থানায় বাবুল আক্তার বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেন।

up-arrow