Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ২৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৭
ভারতের ঘোষণায় সংখ্যালঘুরা দেশত্যাগে উৎসাহিত হবে
---------রানা দাশগুপ্ত
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী ক্রমবর্ধমান হারে হ্রাস পেয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত এর কারণ অনুসন্ধানে সংসদীয় কমিশন গঠনের দাবি জানিয়েছেন। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান তিনি।

‘রানা দাশগুপ্তের বিরুদ্ধে মহল বিশেষের অপপ্রচারের প্রতিবাদে’ এর আয়োজন করা হয়। সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা ও সমঅধিকার নিশ্চিত করে তাদের দেশত্যাগ রোধে পদক্ষেপ গ্রহণ করতেও সরকারের কাছে আহ্বান জানান পরিষদের নেতারা। রানা দাশগুপ্ত বলেন, ভারত সরকারের একটি সিদ্ধান্তের কথা আমরা পত্রিকার মাধ্যমে জানতে পেরেছি। সেটি হলো, এ দেশের সাম্প্রদায়িক সহিংসতার কারণে যেসব সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী ভারতে চলে গেছে তাদের ভারত নাগরিকত্ব দেবে। আমরা এ  ঘোষণার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছি। ভারতের এমন ঘোষণা বাংলাদেশের তৃণমূলে সংখ্যালঘু নির্যাতন বাড়িয়ে দিতে পারে। যারা চায় সংখ্যালঘুদের জমিজমা থেকে উচ্ছেদ করে দেশত্যাগে বাধ্য করতে তারা এ ধরনের ঘোষণায় উৎসাহিত হতে পারে। আরেকটি বিষয় হলো এ ঘোষণা সংখ্যালঘুদের দেশত্যাগেও উৎসাহিত করতে পারে। আমরা বলতে চাই, ’৪৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত সংখ্যালঘু জনসংখ্যা ক্রমবর্ধমান হারে হ্রাস পেয়েছে। এর কারণ নির্ণয়ের জন্য সংসদীয় কমিশন গঠন করা হোক।

সম্মেলনে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জয়ন্ত সেন দীপু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য কাজল দেবনাথ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি উষাতন তালুকদার এমপি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow