Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০৮
কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার আহবান বিজেপির
দীপক দেবনাথ, কলকাতা

বাংলাদেশের ঝিনাইদহে মন্দিরের এক সেবায়েতকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় সে দেশের মৌলবাদী সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে তোপ দাগার পাশাপাশি ঢাকাকে ইসলামের ওইসব স্বঘোষিত রক্ষাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় জনতা পার্টির সংখ্যালঘু নেতা জাফর ইসলাম।

প্রসঙ্গত, গতকাল সকাল সাড়ে ৫টার দিকে এই বর্বরতম খুনের ঘটনাটি ঘটে।

নিহত শ্যামানন্দ দাস ওরফে বাবাজি (৬৫) সদর উপজেলার উত্তর কাষ্টসাগরা  এরপর গ্রামের শ্রীশ্রীরাধামদন গোপাল মঠের সেবায়েত ছিলেন। এদিন সকালে মন্দিরের সামনেই তিনি যখন প্রাতঃভ্রমণ করতে বেরিয়েছিলেন, ঠিক সে সময়ই মোটরবাইকে করে এসে তার ওপর হামলা চালায় তিন দুর্বৃত্ত। এরপরই দিল্লিতে সংবাদমাধ্যমের সামনে এ ঘটনার নিন্দা করে বিজেপি নেতা জাফর ইসলাম বলেন, ‘এটা খুবই লজ্জাজনক ঘটনা যে, বাংলাদেশের তথাকথিত ইসলামী শক্তিগুলোর হাতে হিন্দুদের একের পর এক খুন হতে হচ্ছে। এই ইসলামী শক্তিগুলো নিজেদের ইসলামের রক্ষাকারী বলে দাবি করে। কিন্তু তারা এটা কী প্রচার করছে? তারা কোনো রীতিনীতি মানছে না। ’ জাফর বলেন, ‘মানুষকে খুন করাটা ইসলামে নিষিদ্ধ। আপনি যদি একজন মানুষকে হত্যা করেন তবে সেটা গোটা মানবজাতিকে হত্যা করার শামিল। বাংলাদেশের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে এক্ষুনি বিষয়টি গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করে ইসলামের তথাকথিত রক্ষাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। ’

তবে শুধু এবারই নয়, কয়েক বছর ধরেই দেশব্যাপী পুরোহিত, যাজক, ভিক্ষু, শিক্ষক, ইমাম-মুয়াজ্জিনসহ বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ধর্মীয় গুরুদের হত্যা করছে দুর্বৃত্তরা।

এর মধ্যে বেশ কয়েকটি হত্যাকাণ্ডের পর মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গি সংগঠন আইএস এর দায় স্বীকার করেছিল। যদিও বাংলাদেশ সরকারের তরফে আইএস সক্রিয়তার কোনো প্রমাণ মেলেনি বলে দাবি করা হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow