Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৪৬
দুর্বল পারিবারিক বন্ধন বিচ্ছিন্ন করছে তরুণদের
—ড. মোহিত কামাল
দুর্বল পারিবারিক বন্ধন বিচ্ছিন্ন করছে তরুণদের

স্বনামখ্যাত মনোবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. মোহিত কামাল মনে করেন, আমাদের পারিবারিক বন্ধন দিন দিন দুর্বল হয়ে পড়ছে। পরিবারগুলোতে ভঙ্গুরতা বিরাজ করছে। ফলে তরুণরা সমাজ থেকে খুব সহজেই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে। তবে গুলশান হামলায় যারা অংশ নিয়েছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি, তাদের পরিবার বা পারিবারিক বন্ধন কেমন ছিল তা কেউ জানত না। এ ক্ষেত্রে আপাতদৃষ্টিতে তাদের ভালো পরিবারের মনে হলেও প্রকৃতপক্ষে তারা অপেক্ষাকৃত ভঙ্গুর পরিবারের সন্তান। কেননা তাদের বাবা-মায়েরা সন্তানদের যথেষ্ট সময় দিতেন না। তারা কোথায় যেত, কার সঙ্গে মিশত খোঁজ রাখতেন না। এমনকি নিখোঁজ হওয়ার পরও থানা পুলিশকে জানানো এবং জিডি করার বাইরে অন্য কোনো উদ্যোগ তারা নিয়েছিলেন কি না, তাও দেখার বিষয়। তিনি বলেন, এখানে একটা বিষয় খুব পরিষ্কার, তা হলো আমাদের দেশে গুমের সংস্কৃতি বন্ধ না হওয়াটাও কিন্তু এ ধরনের ঘটনার জন্য দায়ী। যেমন কেউ নিখোঁজ হলে প্রথমেই সন্দেহ করা হয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়ে গেছে। অপহরণ বা অন্য কোনো বিষয়কে ভাবা হয় অনেক পরে। কারণ এখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অহরহই মানুষ উঠিয়ে নিয়ে যায়। কিন্তু স্বীকার করে না। ফলে কেউ নিখোঁজ হলে মানুষ খুব সহজেই অনুমান করতে পারে না আসলে সে অপহরণ হলো, নাকি সে স্বেচ্ছায় নিখোঁজ হলো। এ জায়গা থেকে রাষ্ট্রকে বেরিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষকদের ভূমিকাও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মোহিত কামাল বলেন, পরিবারগুলোর মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনতে হবে। যেন কেউ বিচ্ছিন্ন হতে না পারে। কারও মধ্যে যেন শূন্যতার সৃষ্টি না হয়। কেননা হতাশা, শূন্যতা বা বিচ্ছিন্নতার কারণে জঙ্গিবাদীরা এই তরুণদের বেছে নিতে সুবিধা পায়। তাদের খুব সহজেই হাত করে ফেলে। এ বিষয়ে রাষ্ট্রকে আরও গভীরভাবে চিন্তা করতে হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow