Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৫২
সন্ত্রাস দমনে বিশেষজ্ঞ সহায়তার প্রস্তাব যুক্তরাষ্ট্রের
নিজস্ব প্রতিবেদক
সন্ত্রাস দমনে বিশেষজ্ঞ সহায়তার প্রস্তাব যুক্তরাষ্ট্রের
নিশা দেশাই বিসওয়াল

সন্ত্রাস ও সহিংস চরমপন্থা দমনে বাংলাদেশের সক্ষমতা তৈরিতে বিশেষজ্ঞ সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ঢাকা সফররত মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক সহকারী মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল গতকাল রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ও সচিব মো. শহীদুল হকের সঙ্গে বৈঠকে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেন।

এ সহায়তা কীভাবে তারা দেবে বা বাংলাদেশ তা কীভাবে নেবে, সে ব্যাপারে আজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে নিশার আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব। এ ছাড়াও বৈঠক শেষে মার্কিন দূতাবাসের বিবৃতি এবং পররাষ্ট্র সচিবের বিফ্রিংয়ে বিষয়টি পরিষ্কার করা হয়। গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় ১ জুলাইয়ের জঙ্গি হামলা-পরবর্তী পরিস্থিতিতে নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়ে আলোচনার জন্য নিশা দেশাই গতকাল সকালে ঢাকায় এসেছেন। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন নিশা। বিকাল ৩টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাক্ষাৎ করবেন। ওইসব কর্মসূচির পর যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের আলোচনার বিষয়গুলো আরও স্পষ্ট হবে আশা করেন পররাষ্ট্র সচিব। এ ছাড়াও আজ সকালে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে প্রাতরাশ বৈঠক হওয়ার কথা আছে। গত মে মাসের পর এটি তার দ্বিতীয় ঢাকা সফর। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সচিবের সঙ্গে বৈঠকের সময় নিশা দেশাইয়ের সঙ্গে ছিলেন দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক মার্কিন উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী মানপ্রিত আনন্দ ও বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট। বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক সাংবাদিকদের বলেন, সন্ত্রাস ও উগ্রপন্থা দমনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা দিয়ে আসছে। আগামী দিনেও তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন নিশা বিসওয়াল। বৈঠকে উগ্রপন্থিদের দমনে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মিলে যৌথ অভিযান বা ঘটনা-পরবর্তী যৌথ তদন্তের কোনো প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে পররাষ্ট্র সচিব তা নাকচ করেন।   তিনি বলেন, এ দুটি বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। গুলশান হামলার পর ইতালি ও জাপান বাংলাদেশে যৌথভাবে কূটনৈতিক ও গোয়েন্দা তত্পরতা চালানোর যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে বিষয়েও সচিব সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করেন। সন্ত্রাসবাদ দমনে আমরা যে কোনো দেশের সহযোগিতা নিতে প্রস্তুত, তবে সেই সহযোগিতার মডালিটিজ কী হবে, তা নিয়ে আগে আলোচনা করতে হবে। মার্কিন সহকারী মন্ত্রীর সফরের বিষয়ে সচিব বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের তরফে বিভিন্ন প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শুরু করেছেন তিনি।

মার্কিন দূতাবাসের বিবৃতি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সচিবের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে বিকালে মার্কিন দূতাবাস একটি বিবৃতি দিয়েছে। সেখানে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দফতরের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল এবং দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক উপ-সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী মানপ্রিত আনন্দ এবং বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকের সঙ্গে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক ও নিরাপত্তা বিষয় নিয়ে সাক্ষাৎ করেন। সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাম্প্রতিক সন্ত্রাসী হামলায় ভুক্তভোগীদের জন্য তার সমবেদনা জানান। তিনি বলেন, ‘আমাদের বাংলাদেশি অংশীদারদের সঙ্গে আমরা শোক ভাগ করে নিয়েছি। বাংলাদেশের প্রতি আমাদের অঙ্গীকার সব সময়ের মতোই অটুট থাকবে। ’ সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল বাংলাদেশের সন্ত্রাস দমনে সক্ষমতা তৈরিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষজ্ঞ সহায়তারও প্রস্তাব দেন। এ সময় তিনি বলেন, আমাদের এই দুটি দেশকেই সন্ত্রাসবাদের যে বৈশ্বিক হুমকি মোকাবিলা করতে হচ্ছে তার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা আমাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখব।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow