Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০
জঙ্গিবাদ জিইয়ে রাখতে চায় সরকার
নিজস্ব প্রতিবেদক
জঙ্গিবাদ জিইয়ে রাখতে চায় সরকার

বিএনপিকে নির্মূল করতে সরকার ইচ্ছাকৃতভাবেই জঙ্গিবাদকে জিইয়ে রাখতে চাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে দলটি। গতকাল দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, আসলে সরকারের কর্মকাণ্ডে স্পষ্ট যে, বর্তমানে উগ্রবাদী জঙ্গিগোষ্ঠীর অপতত্পরতার পথপ্রদর্শক হচ্ছে আওয়ামী শাসক গোষ্ঠী। এ সময় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, আবদুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের আমিনুল ইসলামসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। রিজভী আহমেদ জানান, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় কাশীমারী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. ওয়ালিউল্লাহকে ঢাকায় আসার পথে শনিবার সন্ধ্যায় দেবহাটা পারুলিয়া নামক স্থানে পুলিশ বাস থেকে নামিয়ে নিয়ে যায় এবং রাত ৩টার দিকে তাকে ক্রসফায়ারে হত্যা করে। তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ নয়, সরকার বিএনপিকে নির্মূল করার পুরনো পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছে। বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশকে একটি সন্ত্রাসের ‘ব্রিডিং ফার্মে’ পরিণত করেছে সরকার। এরা ইচ্ছাকৃতভাবেই জঙ্গিবাদী অশুভ শক্তিকে জিইয়ে রাখতে চাচ্ছে। কারণ তাদের রক্তক্ষয়ী কর্মকাণ্ডের দিকে জনগণের দৃষ্টি নিবদ্ধ থাকলে অবৈধ সরকারের প্রতি পদত্যাগের চাপ কমে যাবে। তাই সরকার জঙ্গিবাদী তত্পরতায় নিজেদের হালকা বোধ করে। আর এ সুযোগে জঙ্গিবাদ দমনের নামে দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল বিএনপিকে নির্মূল করার কাজ সহজ হবে। আর সে জন্যই দেশজুড়ে আওয়ামী ক্যাডারদের কর্তৃক হত্যা, ক্রসফায়ারে বিএনপি নেতা-কর্মীদের হত্যা সমান গতিতে অব্যাহত আছে। ক্রসফায়ারে ওয়ালিউল্লাহকে হত্যার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান রিজভী। তিনি বলেন, শাসক দল কখনই গণতন্ত্রের পথে পা দেবে না। অথচ একমাত্র সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই জাতীয় সমস্যার সমাধান সম্ভব।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow