Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ জুলাই, ২০১৬ ২৩:২১
নিখোঁজ
ছবির সেই ১০ জনকে ধরতে ইন্টারপোল
নিজস্ব প্রতিবেদক

নিখোঁজ সেই ১০ তরুণের সন্ধানে ইন্টারপোলের সহায়তা নেওয়া হচ্ছে। র‌্যাবের একটি সূত্র এ তথ্য দিয়ে বলেছে, নিখোঁজ ১০ তরুণের এখনো কোথাও সন্ধান পাওয়া যায়নি।

তারা বিদেশে চলে গেছেন কি না তাও নিশ্চিত নয়।

জানা গেছে, গুলশানে হামলাকারীদের কয়েক মাস ধরে নিখোঁজ থাকার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর ১০ যুবকের সন্ধান চেয়ে তাদের ফিরে আসার আহ্বান জানান অভিভাবকরা।

একটি সূত্র জানায়, এই ১০ যুবকের সন্ধান পেতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছে তাদের পরিবার। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে ওই সব পরিবারের পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। পুলিশ সদর দফতর সূত্র জানিয়েছে, তাদের খোঁজ করা হচ্ছে। ইমেগ্রেশনে তাদের ছবিও পাঠানো হয়েছে। এখনো তাদের সন্ধান মেলেনি। শিগগিরই তাদের খোঁজ করতে ইন্টারপোলের সহায়তা নেওয়া হবে। নিখোঁজ এই তরুণরা হলেন—আশরাফ মোহাম্মদ ইসলাম, এ টি এম তাজউদ্দিন, ইব্রাহীম হাসান খান, জুবায়েদুর রহিম, জুন্নুন শিকদার, জুনায়েদ খান, তামিম আহমেদ চৌধুরী, নজিবুল্লাহ আনসারী, মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ ওজাকি ও মোহাম্মদ বাসারুজ্জামান। জানা গেছে, ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে একদল অস্ত্রধারী ঢুকে দেশি-বিদেশি অন্তত ৩৩ অতিথিকে জিম্মি করার পর ২০ জনকে হত্যা করে। এই ‘হামলাকারীদের’ ছবি সাইট ইন্টেলিজেন্স প্রকাশ করার পর তাদের সঙ্গে মিল দেখে পরিচিতজনরা পুরনো ছবি পাশাপাশি রেখে শেয়ার করতে থাকেন। এর মধ্য দিয়ে পাঁচ হামলাকারীরই পরিচয় জানা সম্ভব হয়, যাদের মধ্যে স্কলাসটিকার সাবেক ছাত্র রোহান ইমতিয়াজ ও বর্তমান ছাত্র মীর সামি মোবাশ্বির এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র নিবরাস ইসলাম রয়েছেন। কয়েক মাস ধরে এরা নিখোঁজ ছিলেন বলে তাদের পরিবার জানিয়েছে। অপর দুই হামলাকারী বগুড়ার ধুনটের শফিকুল ইসলাম উজ্জ্বল ও শাজাহানপুর উপজেলার চোপিনগর ইউনিয়নের মো. খায়েরুজ্জামানও কয়েক মাস ধরে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের বাইরে ছিলেন বলে তাদের স্বজনরা জানান।

র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ পরিবারের কোনো সদস্য নিখোঁজ থাকলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানাতে অনুরোধ করেন। এর পরই ১০টি পরিবার তাদের সন্তানরা নিখোঁজ রয়েছে বলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে গিয়ে অভিযোগ করে। শনিবার তারা পুলিশ ও গোয়েন্দাদের কাছে জানালেও এখনো নিখোঁজদের সন্ধান মেলেনি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow