Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই, ২০১৭

প্রকাশ : বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৩১
শোকসভায় ফখরুল
জঙ্গি নিয়ে দোষারোপের রাজনীতি নয়
নিজস্ব প্রতিবেদক
জঙ্গি নিয়ে দোষারোপের রাজনীতি নয়
গুলশানের হলি আর্টিজানে নিহতদের স্মরণে গতকাল রাজধানীতে শোক সভা করে বিএনপি —বাংলাদেশ প্রতিদিন

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সন্ত্রাসী-জঙ্গি হামলার ঘটনা নিয়ে দোষারোপের রাজনীতি করা হলে প্রকৃত জঙ্গিদের দমন করা যাবে না। যখনই কোনো ঘটনা ঘটে তখনই আওয়ামী লীগের লোকেরা এর জন্য বিএনপি-জামায়াতকে দায়ী করে বক্তৃতা করেন। বিরোধী দলকে দায়ী করে জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে ফেরানোর এই সরকারি চেষ্টা বন্ধের আহ্বান জানান তিনি। গতকাল সন্ধ্যায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে গুলশান ও শোলাকিয়ায় সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলায় হতাহতের ঘটনায় দলের পূর্ব-ঘোষিত শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বিএনপি মহাসচিব এ কথা বলেন। সভা শেষে রাজধানীতে একটি শোকর্যালি বের করার কথা থাকলেও পুলিশের অনুমতি না পাওয়ায় তা করতে পারেনি দলটি। মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে এসব উগ্র ও জঙ্গিবাদের রক্তাক্ত হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে হলে বেগম খালেদা জিয়ার ডাকে দলমতনির্বিশেষে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। তাহলেই এসব হত্যাকাণ্ড বন্ধ করা সম্ভব। ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা অব্বাসের সভাপতিত্বে শোকসভায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আহমেদ আজম খান, যুগ্ম-মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন, মজিবর রহমান সরোয়ার প্রমুখ বক্তব্য দেন। সভায় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সরকারকে বেগম খালেদা জিয়ার জাতীয় ঐক্যের আহ্বানে সাড়া দেওয়া উচিত। কারণ বিএনপিই একমাত্র সরকারের শক্তি হতে পারে। বিএনপিকে বাদ দিয়ে কোনো জাতীয় ঐক্য সম্ভব হবে না। বাস্তবতা স্বীকার করতে হবে। তারা যত দ্রুত এ বাস্তবতা স্বীকার করবে তত দেশ ও তাদের নিজেদের মঙ্গল হবে। তিনি আরও বলেন, জোর করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দিয়ে জঙ্গিবাদ দমন করা যাবে না। যতদিন বাংলাদেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত না করবে ততদিন শুধু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সেনাবাহিনী দিয়ে উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদ দমন করা সম্ভব হবে না। মির্জা আব্বাসের পুরস্কার ঘোষণা : শোকসভায় সভাপতির বক্তৃতায় সরকারের মন্ত্রী ও দুই বাম নেতা রাশেদ খান মেনন ও হাসানুল হক ইনুর জন্য পুরস্কার ঘোষণা করেন মির্জা আব্বাস। তিনি বলেন, বিএনপিকে না বকে মেনন ও ইনু বক্তব্য দেবেন, সেটি যদি ভালো বক্তব্য হয় আমি তাদের ঢাকা-আমেরিকার ফ্লাইটের টিকিট দেব। তিনি বলেন, ইনু ও মেননের মুখটাই তৈরি হয়েছে যেন শুধু বিএনপিকে বকাবকি করার জন্য, তোষামোদি করে মন্ত্রী থাকার জন্য। তাই অন্য কেউ বলুক আর না বলুক, ইনু সাহেবরা বলবেন। কারণ, তারা রাজনীতির ঘোলা পানিতে মাছ শিকারেই অভ্যস্ত।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow