Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৩ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৩৭
জঙ্গি হামলায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়নি
—পররাষ্ট্রমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক
জঙ্গি হামলায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়নি

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বলেছেন, বাংলাদেশে সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়নি। সন্ত্রাসের সমস্যা একটি বৈশ্বিক সমস্যা। বিদেশে অনেক প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে। এতে ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়ার সুযোগ আছে বলে আমি মনে করি না। গতকাল নিজ দফতরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এশিয়া-ইউরোপ (আসেম) শীর্ষ সম্মেলনে যোগদান উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। ১৫ জুলাই মঙ্গোলিয়ার রাজধানী উলান বাটোরে দুই দিনের এ সম্মেলন শুরু হচ্ছে। এতে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার মঙ্গোলিয়া যাচ্ছেন। সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদ আলী বলেন, আমি মনে করি না কোনোভাবে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ঘটনার সঙ্গে এই ঘটনার কোনো তুলনাই হয় না। এটা একটা শোকাবহ, ট্র্যাজিক ঘটনা। একে নেতিবাচকভাবে দেখার কোনো সুযোগ নেই। এখনো বিশ্বের কোনো দেশই বাংলাদেশ থেকে যাওয়ার ঘোষণা দেয়নি। জাইকার সভাপতি জানিয়েছেন যে, তারা বাংলাদেশের সঙ্গে আছেন। গুলশান হামলায় আহত হওয়া জাপানি নাগরিকও বাংলাদেশে ফিরে আসার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনায় অনেক দেশ আমাদের সহমর্মিতা জানিয়েছে। সে তালিকা অনেক দীর্ঘ। আমরা মনে করি, এই অপশক্তিকে মোকাবিলা করতে আমরা সক্ষম হব। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা জাতীয় স্বার্থ এবং প্রয়োজনের নিরিখে টেকনোলজি ও ট্রেনিংয়ের বিষয়ে সহযোগিতা নেব। সন্ত্রাসবাদ দমনে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা নেওয়া হচ্ছে কি না- জানতে চাইলে মাহমুদ আলী বলেন, আমরা তো অবশ্যই বন্ধু রাষ্ট্রের সহযোগিতা নিতে চাই। সম্ভাব্য কারিগরি ও প্রশিক্ষণের যে সুযোগগুলো আছে, তা জাতীয় স্বার্থে এবং আমাদের প্রয়োজনের স্বার্থে সামঞ্জস্যপূর্ণ হলে যেটা ভালো হয় সেটা বিবেচনা করেই নেব। তিনি জানান, আগামী ১৫ ও ১৬ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য এশিয়া-ইউরোপ শীর্ষ সম্মেলন (আসেম) এ যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী মঙ্গোলিয়া যাবেন। সেখানে সাইডলাইনে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট, জার্মানির চ্যান্সেলর, রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী, জাপানের প্রধানমন্ত্রী, নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী, ইউরোপিয়ান কাউন্সিলের প্রধান ও ভারতের উপ-রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠক করবেন। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ হবে। তিনি বলেন, সন্ত্রাসবাদ এখন গোটা বিশ্বের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কাজেই এ বিষয়ে অবশ্যই আসেম সম্মেলনে আলোচনা হবে। সম্মেলনের ফাঁকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে সন্ত্রাসবাদ দমন নিয়ে একটি বিশেষ আলোচনার উদ্যোগ নিয়েছেন। ওই আলোচনায় যৌথভাবে সভাপতিত্ব করার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হকসহ মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow