Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৪৮
নিবরাসরাই কি ঝিনাইদহে ৪ খুনের হোতা
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
নিবরাসরাই কি ঝিনাইদহে ৪ খুনের হোতা

‘সাঈদ’ নামে যে যুবক বাড়ি ভাড়া নিয়ে ঝিনাইদহ শহরের সোনালীপাড়ায় ছাত্রাবাস গড়েছিলেন, তিনিই ঢাকার গুলশানে রেস্তোরাঁয় হামলাকারী জঙ্গি নিবরাস ইসলাম। এটা জানাজানি হওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে, নিবরাস ও তার সাথীরাই কি ঝিনাইদহের সাম্প্রতিক ৪ খুনের হোতা? ছাত্রাবাসটিতে নিবরাসের সঙ্গে আরও যে ৭ যুবক থাকতেন তারা কারা? এসব প্রশ্নের এখনো কিনারা হয়নি। ছাত্রাবাসে ৮ যুবকের জন্য খাবার রান্না করতেন যে বুয়া তিনি জানান, নিবরাস একটা মোটরসাইকেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ঘোরাঘুরি করতেন।

পুরোহিত আনন্দগোপাল গাঙ্গুলি ও সেবায়েত শ্যামানন্দ দাসকে যারা খুন করেছিল তারা ৩ জন মোটরসাইকেল চেপে এসেছিল। হোমিও ডাক্তার সমির খাজা ও শিয়া মতবাদী আবদুর রাজ্জাককে হত্যা করতে ঘাতকরা মোটরসাইকেলে করে এসেছিল— এরকম প্রত্যক্ষদর্শী সম্পর্কে জানা যায়নি। কিন্তু নিবরাসকে তার মোটরসাইকেলে আরও দুই আরোহীকে নিয়ে ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেছে। তাই সন্দেহ জাগছে, গুলশান অপারেশনের আগে নিবরাস তার সাথীদের সঙ্গে একজোট হয়ে এই চারটি খুন করেছিল কিনা। গুলশান হত্যাকাণ্ডের কৃতিত্ব যেমন আইএস দাবি করেছে তেমনি ওই চার খুনের দায়িত্বও আইএস দাবি করেছিল। তাই, জনমনে প্রশ্ন উঠেছে নিবরাস ‘হাত পাকিয়েই’ ঝিনাইদহ থেকে ঢাকায় রক্তের স্রোত বইয়ে দিতে গিয়েছিল? নিহত নিবরাসের ছবি দেখে সোনালীপাড়ার বাড়ির মালিক সেনাবাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট কাওসার আলীর স্ত্রী বিলকিস নাহার বলেছিলেন, ‘এ তো সাঈদ। আমাদের বাড়িতে ভাড়া থাকত। ’ কিন্তু বিলকিস নাহার গতকাল কোনো কথা বলেননি। বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্মীরা তার বক্তব্য নিতে গেলে তিনি তাতে সাড়া দেননি। অথচ আগের দিন বিলকিস নাহার অনেক কথাই মিডিয়া কর্মীদের কাছে বলেছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow