Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩১ আগস্ট, ২০১৬ ২৩:২০
নারী ফুটবলারদের গোলবন্যায় ভেসে গেল কিরগিজস্তান
রাশেদুর রহমান
নারী ফুটবলারদের গোলবন্যায় ভেসে গেল কিরগিজস্তান
কিরগিজস্তানকে গুঁড়িয়ে দিয়ে গতকাল কিশোরী ফুটবলারদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস —বাংলাদেশ প্রতিদিন

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে কয়েক হাজার দর্শক। টিভি পর্দায় চোখ ছিল আরও অনেকেরই।

এমনটা আগে কখনো কেউ দেখেনি। মেয়েদের তো বটেই, ছেলেদের ফুটবলেও এমন ম্যাচ আগে আর হয়নি। যেখানে উল্লাস শেষ করে সোজা হয়ে বসার আগেই আরও একবার উল্লাসে মেতে উঠতে হয়! দর্শকদের আনন্দ-চিত্কার বাতাসে মিলিয়ে যাবার আগেই আরও একবার শোনা যায় উল্লাস-ধ্বনি! এমন আনন্দঘন ফুটবল আগে আর কখনোই দেখেনি বাংলাদেশ! এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বে সি গ্রুপের ম্যাচে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের মেয়েরা ফুটবলের এক অবিশ্বাস্য রূপই দেখাল গতকাল। কৃষ্ণা-মগিনি-শামসুন্নাহারদের গোল-বন্যায় ভেসে গেল কিরগিজস্তান। ১০-০ গোলের বিশাল জয়ে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখল বাংলাদেশের মেয়েরা। দক্ষিণ কোরিয়াতে ২০০৫ সালে প্রথমবারের মতো এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই একবারই বাংলাদেশ খেলেছিল এ টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত পর্বে। সেবার বি গ্রুপে জাপান, গুয়াম আর হংকংয়ের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছিলেন হাসিনা বেগমরা। এক যুগ পর আবারও চূড়ান্ত পর্বে খেলার আশা জাগিয়ে তুললেন কৃষ্ণা রানীরা। গতকাল সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনেকটা চাপে থেকেই খেলায় নামে বাংলাদেশ। আগের ম্যাচে সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে চীনা তাইপের ৯-০ গোলের জয় জটিল হিসেবে ফেলে দেয় কৃষ্ণা রানীদের। তবে ম্যাচ খেলতে নেমে চাপের বিন্দুমাত্র প্রভাবও নিজেদের উপর পড়তে দেননি তারা। ম্যাচের ২১ মিনিটেই অনুচিং মগিনির গোলে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। এরপর যেন গোল-বন্যা বয়ে যায় কিরগিজস্তানের গোল পোস্টে। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার আগেই ৪-০ গোলে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। অনুচিং মগিনি (৪৫) আরও একটি গোল করেন প্রথমার্ধে। এছাড়াও গোল করেন মার্জিয়া (৩০) ও কৃষ্ণা রানী (৪৩)। দ্বিতীয়ার্ধে আরও দুরন্ত হয়ে উঠে বাংলার বাঘিনীরা। কৃষ্ণা রানী ৪৮ ও ৭৯ মিনিটে দুটি গোল করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন। এর মাঝে গোল করেন শামসুন্নাহার (৬৮) ও নার্গিস খাতুন (৭৫)। মারিয়া ৮৪ মিনিটে দলের নবম গোলটি করেন। ম্যাচের ৮৭ মিনিটে কিরগিজস্তানের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকেন শামসুন্নাহার।

 শেষ মুহূর্তে কৃষ্ণা রানীদের আরও একটি গোল রেফারি বাতিল করে দেন। তবে ততোক্ষণে বাংলাদেশের মেয়েরা এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখার মতো রসদ পেয়ে গেছেন। সি গ্রুপে ৩ ম্যাচে পূর্ণ ৯ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। সমান পয়েন্ট রয়েছে চীনা তাইপেরও। তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে শীর্ষে আছে চীনা তাইপে। তারা ২১ গোল দিয়ে হজম করেছে মাত্র ১ গোল (গোল ব্যবধান +২০)। বাংলাদেশের মেয়েরা ১৮ গোল দিয়েছে কোনো গোল হজম না করেই (গোল ব্যবধান +১৮)। দুই গোল পিছিয়ে থাকলেও সম্ভাবনা জেগে থাকল বাংলাদেশের। শনিবার চীনা তাইপের বিপক্ষে ম্যাচটা জিতলেই চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত হবে কৃষ্ণা রানীদের। এছাড়াও সোমবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ম্যাচও তো রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow