Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫৪
চাঁদপুরে তেলের ট্যাংকারে আগুন, নিহত এক দগ্ধ ৬
চাঁদপুর প্রতিনিধি
চাঁদপুরে তেলের ট্যাংকারে আগুন, নিহত এক দগ্ধ ৬

চাঁদপুর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে যমুনা অয়েল এজেন্সির গোডাউনে জ্বালানি তেলের ট্যাংকার থেকে অগ্নিকাণ্ডে একজন নিহত ও ছয়জন দগ্ধ হয়েছেন। নিহতের নাম মো. রায়হান (২৩)। ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রাতে তার মৃত্যু হয়। নিহত যুবক তেল কোম্পানিটির এজেন্সি মালিক মিজানুর রহমানের ছেলে। এদিকে ওই আগুনে পুড়ে গেছে তিনতলা ভবনের একাংশ। বুধবার রাত সাড়ে ১২টায় একটি জ্বালানি তেলের ট্যাংকার থেকে তেলের গোডাউনে ড্রামে তেল অপসারণের সময় অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। মুহৃর্তেই আগুন পুরো ট্যাংকারে ছড়িয়ে পড়ে এবং গোডাউনে বিক্রির জন্য থাকা গ্যাস সিলিন্ডারগুলো বিকট শব্দে ওপরের দিকে উঠে যায়। স্থানীয়রা জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর শুনে চাঁদপুর উত্তরপাড়ার ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট এসে আড়াই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন কমান্ডার ফারুক জানান, তাদের চারটি ইউনিটের সদস্যরা রাত ৩টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন। এ সময় যমুনা অয়েল এজেন্সির মালিক মিজানুর রহমানসহ সাতজন গুরুতর আহত হয়েছেন। ওই ভবনে থাকা বাকি লোকদের উদ্ধার করা হয়েছে। অগ্নিদগ্ধরা হলেন— মিজানুর রহমান (রায়হানের বাবা), নুর মোহাম্মদ (২১),  বাদশা মিয়া (৫০), মাসুদ হোসেন (২৮), বেলাল হোসেন (৩৫)। চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. বেলাল বলেন, অগ্নিদগ্ধ ছয়জনকেই ঢাকায় রেফার করা হয়েছে। এদের মধ্যে চারজন ৮০-৯০% এবং দুজন ৫০-৬০% দগ্ধ হয়েছেন। এ ছাড়া আহত ফায়ার সার্ভিস কর্মী খোকন মজুমদার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক রতন দত্ত বলেন, আগুন নেভাতে সক্ষম হলেও তাত্ক্ষণিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বলা যাচ্ছে না। তবে ওই গোডাউনে ডিজেল, পেট্রল, অকটেন, গ্যাস সিলিন্ডার ও কেরোসিন ছিল। এ ছাড়াও যে ট্যাংকার থেকে তেল নামানো হচ্ছিল, তাতেও তেল ছিল। ট্যাংকারটি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow